চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

ইমরান খানের ১৪ দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ মে, ২০২৩ | ১১:২০ পূর্বাহ্ণ

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানকে আজ বুধবার (১০ মে) আদালতে পেশ করা হবে। এসময় আইন অনুযায়ী সর্বোচ্চ ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন করবে দেশটির ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি)।

এতে করে সম্ভবত চার থেকে পাঁচ দিনের জন্য এনএবি হেফাজতে থাকতে হতে পারে ইমরানকে। বুধবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার গ্রেপ্তার হওয়ার পর সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে সম্ভবত চার থেকে পাঁচ দিনের জন্য এনএবি হেফাজতে থাকতে হতে পারে। কারণ আইনে অনুমোদিত সর্বোচ্চ রিমান্ডের জন্য আদালতের কাছে আবেদন জানাবে সংস্থাটি।

এনএবির একটি সূত্র মঙ্গলবার ডনকে জানিয়েছে, ইমরান খানকে আজ (বুধবার) জবাবদিহি আদালতে পেশ করা হবে। ওই সূত্রটি বলেছে, ‘আমরা তাকে (ইমরান খানকে) কমপক্ষে চার থেকে পাঁচ দিনের জন্য হেফাজতে রাখার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।’

১৯৯৯ সালের সংশোধিত ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি অর্ডিন্যান্স-এর বিধিতে আদালতের মাধ্যমে প্রদত্ত শারীরিক রিমান্ডের সময়কাল ৯০ দিন থেকে কমিয়ে ১৪ দিন করা হয়েছে। ওই সূত্রটি জানায়, ‘আমরা আদালত থেকে সর্বোচ্চ ১৪ ​​দিনের শারীরিক রিমান্ড চাইব। আদালত কমপক্ষে চার থেকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।’

গ্রেপ্তারের পর পিটিআই প্রধানের অবস্থা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে সূত্রটি জানায়, ইমরান খানকে ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) রাওয়ালপিন্ডি/ইসলামাবাদ আঞ্চলিক সদর দপ্তরে ‘আরামদায়ক পরিবেশে’ আটক রাখা হয়েছে।

তিনি দাবি করেন, ইমরান খানের সাথে ‘কঠোর কোনও আচরণ’ করা হবে না এবং সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে কেবল মামলায় তার কথিত সংশ্লিষ্টতা এবং আর্থিক সুবিধা চাওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এদিকে অফিসিয়াল এক বিবৃতিতে ইমরান খানের বিরুদ্ধে মামলার বিবরণও প্রকাশ করেছে ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো।

এর আগে বুধবার ইসলামাবাদ হাইকোর্টের বাইরে থেকে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করা হয়। আল-কাদির ট্রাস্ট মামলায় ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) ওয়ারেন্টে পাকিস্তানের আধাসামরিক বাহিনী রেঞ্জার্স তাকে গ্রেপ্তার করে।

অবশ্য দুর্নীতি বিরোধী এই সংস্থা মঙ্গলবার ইসলামাবাদ হাইকোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে রেঞ্জার্সের সহায়তায় ইমরান খানের গ্রেপ্তারকে বৈধ দাবি করে এটিকে এনএবি আইন অনুসারে আইনি এবং ন্যায্য বলে অভিহিত করেছে।

এদিকে ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের পর পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। পিটিআই কর্মীরা ইসলামাবাদ, রাওয়ালপিন্ডি, লাহোর, করাচি, গুজরানওয়ালা, ফয়সালাবাদ, মুলতান, পেশোয়ার এবং মারদানসহ সারা দেশের শহরগুলোতে বিক্ষোভ করছে বলে জিও নিউজ জানিয়েছে।

এছাড়া গ্রেপ্তারের পর ইমরান খানের সমর্থকরা রাওয়ালপিন্ডিতে পাকিস্তানের সেনা সদর দপ্তর এবং লাহোরে সেনাবাহিনীর কর্পস কমান্ডারের বাসভবনে হামলা চালিয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এই পরিস্থিতিতে চলমান বিক্ষোভের মধ্যেই রাজধানী ইসলামাবাদে সমর্থকদের জড়ো হতে বলেছে ইমরান খানের দল পিটিআই।

সংবাদমাধ্যম বলছে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত দেশব্যাপী চলমান বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে বলে উল্লেখ করে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) বুধবার সকাল ৮টায় ইসলামাবাদ জুডিশিয়াল কমপ্লেক্সে জড়ো হওয়ার জন্য দলের নেতা, কর্মী ও সমর্থকদের নির্দেশ দিয়েছে।

 

 

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট