চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪

সর্বশেষ:

আফগানিস্তানে ব্যভিচারের দায়ে ১১ জনকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

আফগানিস্তানের বাদাখশান প্রদেশে দুই নারীসহ ১১ জনকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। নৈতিক স্থলন আর ব্যভিচারের অভিযোগে এনে তাদের এই বেত্রাঘাত করা হয়েছে।

তালেবান নিয়ন্ত্রিত দেশটির সুপ্রিম কোর্টের আদেশে বাদাখশানের ফাইজাবাদ শহরের একটি খেলার মাঠে জনসম্মুখে তাদের বেত্রাঘাত করা হয় বলে আফগানিস্তানের সংবাদমাধ্যম খামা প্রেস জানিয়েছে।

দেশটির সরকারের বিবৃতির বরাত দিয়ে খামা প্রেস বলছে, বাদাখশানের উত্তরাঞ্চলীয় শহর ফাইজাবাদে নৈতিক অপরাধ ও ব্যভিচারের দায়ে ১১ জনকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত করেছে তালেবান প্রশাসন। মাঠে অভিযুক্তদের বেত্রাঘাতের সাজা দেখতে শত শত মানুষ জড়ো হন। তালেবান কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় শিক্ষাবিদ ও বয়োজ্যেষ্ঠদের উপস্থিতিতে ওই ১১ জনকে বেত্রাঘাত করা হয়।

এর আগে, তালেবানের সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী, দক্ষিণ হেলমান্দ প্রদেশের গ্রিশক জেলায়ও ১৬ জনকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত করা হয় বলে খামা প্রেস জানিয়েছে।

দেশটির এই সংবাদমাধ্যম বলছে, সম্প্রতি আফগানিস্তানের বিভিন্ন প্রদেশে বিভিন্ন অপরাধের দায়ে অন্তত ২৫০ জনকে প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত করেছে তালেবান।

খামা প্রেসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, তালেবানের সর্বোচ্চ নেতা হিবাতুল্লা আখুন্দজাদা আদালতে বিচারকদের শরিয়া আইন প্রয়োগের নির্দেশ দেওয়ার পর দেশটিতে গত নভেম্বর থেকে প্রকাশ্যে শাস্তির এই চর্চা শুরু হয়েছে।

গত কয়েক মাসে তালেবান-নিয়ন্ত্রিত প্রশাসন হেলমান্দ, ফারাহ, তাখার, লোগার, কাবুল, বাদাখশান, উরুজগান, জাওজান, পারওয়ান, পাকতিয়া, পাকতিকা, লাঘমান এবং অন্যান্য কিছু প্রদেশসহ বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য লোকজনের প্রকাশ্যে বেত্রাঘাতের সাজা কার্যকর করেছে।

তালেবান ক্ষমতায় আসার পর আফগানিস্তানে ব্যাপক মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ককে আফগানিস্তানে অবৈধ হিসাবে দেখা হয়। আর এ ধরনের সম্পর্কে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তালেবান প্রশাসন প্রকাশ্যে বেত্রাঘাতের সাজা কার্যকর করেছে। সূত্র: খামা প্রেস

 

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন