চট্টগ্রাম সোমবার, ২২ জুলাই, ২০২৪

সর্বশেষ:

সোশ্যাল মিডিয়া আসক্তি কাটানোর ৭ উপায়

অনলাইন ডেস্ক

২৭ জুলাই, ২০২৩ | ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

ভাবছেন মিনিট দশেকের জন্য ফেসবুকে ঢুঁ মারবেন। কিন্তু স্ক্রলিং করতে করতে কখন যে একঘণ্টা সময় পেরিয়ে গেছে টেরই পাননি! ফেসবুক তথা সোশ্যাল মিডিয়া নিজেদের অজান্তেই এভাবে আমাদের আসক্ত করে তোলে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেসবুক বা ইন্সটাগ্রামের মতো সোশ্যাল সাইটগুলোতে পড়ে থাকলে কেবল সময়ই নষ্ট হয় না, শারীরিক ও মানসিকভাবেও ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে। সমীক্ষা বলছে, আজকাল বিষণ্ণতার মতো ব্যাধি অনের বেড়ে গেছে অতিরিক্ত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের কারণে।

যেভাবে দূরে থাকবেন ফেসবুক, টুইটার বা ইন্সটাগ্রাম থেকে:

১। ব্যবহারের উদ্দেশ্য সম্পর্কে সচেতন হওয়া জরুরি: আপনি কেন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছেন? এই উত্তর খুঁজে বের করতে হবে আপনাকেই। বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করা, সাম্প্রতিক বিষয় সম্পর্কে তথ্য পাওয়া, পেশাদার নেটওয়ার্ক তৈরি করা ইত্যাদি নানা কারণ থাকতে পারে। আপনি ঠিক কোন উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছেন সেটা খুঁজে বের করুন। বিষয়টি সম্পর্কে আপনি একবার সচেতন হয়ে গেলে সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়াও উদ্দেশ্যগুলো পূরণ করা যায় কিনা সেটা নিয়ে ভাবতে পারবেন।

২। নির্দিষ্ট সময়সীমা ঠিক করুন: প্রতিদিন সোশ্যাল মিডিয়াতে কতোটা সময় ব্যয় করবেন সেটা ঠিক করুন। সে অনুযায়ী স্মার্টফোনে অ্যাপ টাইমার সেট করে নিন।

৩। নোটিফিকেশন অ্যালার্ট বন্ধ করে দিন: ফোনে সোশ্যাল মিডিয়ার নোটিফিকেশন আসলে বারবার চেক করতে ইচ্ছে হয়। তাই মুঠোফোনে যেন নোটিফিকেশন না আসে সেজন্য সেটিং বদলে দিন।

৪। শখের কাজে সময় ব্যয় করুন: সোশ্যাল মিডিয়ায় সীমাহীন সময় ব্যয় করা কোনও ভালো ফল বয়ে আনে না। নিজের মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে তাই অন্যান্য শখের কাজের প্রতি মনোযোগ দিন। বই পড়া, শখের বাগান করা বা অন্য কোনও শখের কাজ থাকলে সেটা নিয়ে সময় কাটান।

৫। বাস্তব যোগাযোগ বাড়ান: অনলাইনে যোগাযোগ করা সহজ, তবে সবসময় এটি খুব স্বাস্থ্যকর নয়। চেষ্টা করুন বন্ধুদের সঙ্গে সামনাসামনি দেখা করে আড্ডা দিতে। আড্ডার সময় ফোন ব্যবহার করবেন না, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করবেন প্রয়োজন ছাড়া ফোন ব্যবহার না করার জন্য। পরিবারের সঙ্গেও সময় কাটান। একসঙ্গে রাতের খাবার খান, নির্মল আড্ডা দিন। এই সময় হাতের কাছে স্মার্টফোন রাখবেন না।

৬। কেনাকাটার পেইজগুলো প্রয়োজন ছাড়া লাইক দেবেন না: শাড়ি, সালোয়ার কামিজ, গয়না, গ্যাজেট বা অনলাইন কেনাকাটার সাইটগুলোর পেইজ লাইক করবেন না। অযথা বিজ্ঞাপন আসলে সেগুলো হাইড করে দিন।

৭। নিজেকে চ্যালেঞ্জ করুন: একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার না করার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিন নিজেকেই। সেটা শুরুতেই অনেক বেশি সময়ের জন্য হতে হবে এমন নয়। শুরুতে একটি পুরো বেলা, এরপর একদিন এভাবে এগিয়ে সপ্তাহখানেকের জন্য সময় নির্ধারণ করতে পারেন। এই সময় ভ্রমণে যেতে পারেন বন্ধুদের নিয়ে।

 

পূর্বকোণ/সাফা/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট