চট্টগ্রাম শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

মরিয়ম বেগম

মশা মারার কয়েল ক্রিম ওষুধে বাড়ছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি

মশার ওষুধের ক্ষতিকর প্রতিক্রিয়ায় হাঁপানি, শ্বাসকষ্ট, ক্যানসার, ফুসফুস, কিডনির রোগসহ নানা রোগের বিপদ বাড়ছে। মশার ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ও পণ্যের হার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেগুলোর মান ও প্রয়োগ নিয়েও বাড়ছে সংশয়।

মশার কয়েলে সর্বোচ্চ দশমিক ০৩ মাত্রার ‘অ্যাকটিভ ইনগ্রিডিয়েন্ট’ ব্যবহারের নির্দেশনা রয়েছে। মশা তাড়ানোর জন্য এ মাত্রাই যথেষ্ট কার্যকর। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, অনুমোদন ছাড়াই উৎপাদন ও বাজারজাত করা স্প্রে বা কয়েলে শুধু মশাই নয়, বিভিন্ন পোকামাকড়, তেলাপোকা এমনকি টিকটিকিও মারা যায়। এতেই বোঝা যায়, এসব সরঞ্জামে নির্ধারিত মাত্রার চেয়ে বেশি হারে ‘অ্যাকটিভ ইনগ্রিডিয়েন্ট’ ব্যবহৃত হচ্ছে, যা জনস্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

অন্যান্য কীটনাশকের পাশাপাশি যেকোনো ধরনের মশার ওষুধের লাইসেন্স প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্লান্ট প্রটেকশন উইং সূত্র থেকে জানা যায়, দেশে ৭৭টি প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫০০ ব্র্যান্ডের মশার ওষুধ তৈরি বা আমদানির মাধ্যমে বাজারজাত হচ্ছে। এসব ওষুধের উপাদানের মধ্যে বিভিন্ন ব্র্যান্ড বিভিন্ন জেনেরিক ব্যবহার করে থাকে। একেক ধরনের মশার জন্য একেক ধরনের ওষুধ রয়েছে। বয়স্ক মশার জন্য এক ওষুধ, লার্ভার জন্য আরেক ওষুধ। তবে সাধারণত দেশে মশা নিধনে পারমেথ্রিন, বায়োঅ্যালোথ্রিন, ডি-ট্রান্স অ্যালোথ্রিন, টেট্রাথ্রিন, ডেল্ট্রামেথ্রিন, বায়োলেথ্রিন, মেটোফ্লুথ্রিন, সাইপারমেথ্রিন, ইমিপোথ্রিন, ডায়াজনিনসহ আরো কিছু উপাদান বেশি ব্যবহৃত হয়। কোনো কোনো কম্পানি যেকোনো একক উপাদান দিয়ে কোনো ওষুধ তৈরি করছে, আবার কেউ কেউ একাধিক কম্বিনেশনের ওষুধও তৈরি করছে।
মশা তাড়ানোর জন্য ব্যবহৃত বেশির ভাগ অ্যারোসল স্প্রেতে পাইরিথোয়েড নামক রাসায়নিক উপাদান থাকে। মানব দেহের জন্য তা খুবই ক্ষতিকর। অনেকে আবার মশা তাড়াতে ক্রিম ব্যবহার করেন। এতেও ক্ষতি হতে পারে। এসব ক্রিম বা লোশনে ডিট নামে এক ধরনের টলুঅ্যামাইড থাকে। এটি স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। যেমন ত্বকে র্যাশ, ফুসকরি, চুলকানি, এ্যালার্জি, চোখে ব্যথা হতে পারে।

তাই আমাদের উচিত ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে যেকোনো ওষুধ বা ক্রিম ব্যবহার করা। না হলে মশারি ব্যবহার করাই সবচেয়ে ভালো। (শেষ)
[সূত্র : ম্যানস হেলথ]

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 228 People

সম্পর্কিত পোস্ট