চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

গবেষণা রিপোর্ট জানাচ্ছে ভয়ঙ্কর ভবিষ্যতের খবর! গত ৫৫ বছরে সাড়ে ৯ লক্ষ কোটি টনেরও বেশি (৯ হাজার ৬২৫ গিগাটন) বরফ গলে গিয়েছে বিশ্বের প্রায় সব প্রান্তের হিমবাহের। যা সমুদ্রের জলস্তরকে ঠেলে উপরে তুলে দিয়েছে অন্তত ২৭ মিলিমিটার।

আসছে শতকে হিমবাহ আর থাকছে না ! বলছে গবেষণা

নাসরিন আকতার

৯ মে, ২০১৯ | ২:১৭ অপরাহ্ণ

(গত সংখ্যার পর)
ভারত-সহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় হিমবাহ গলছে বেশি দ্রুত হারে!
পুণের ‘ন্যাশনাল সেন্টার ফর অ্যান্টার্কটিক অ্যান্ড ওশন রিসার্চ’ (এনসিএওআর)-এর অধিকর্তা এম রবিচন্দ্রন জানিয়েছেন, এই গবেষণার সবচেয়ে লক্ষ্যণীয় দিকটা হল, গত অর্ধশতাব্দীতে যখন দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সবক’টি হিমবাহের মোট বরফ গলেছে ১১২ গিগাটনেরও বেশি, তখন দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়ার প্রত্যেকটি গুরুত্বপূর্ণ হিমবাহে বরফের পরিমাণ মোট বেড়েছে ১১৯ গিগাটন (এর গিগাটন বলতে বোঝায় ১ লক্ষ কোটি টন)।
অর্ঘ্যের কথায়, উষ্ণায়নের প্রভাব তুলনামূলক ভাবে কম পড়েছে যে সব এলাকায়, সেই ইউরোপের দিকে থাকা আল্পস পর্বতমালা ও ককেশাস পর্বতমালারও প্রায় সবক’টি হিমবাহই খুব দ্রুত হারে গলে গিয়েছে গত ৫৫ বছরে। তবে তা সাগর, মহাসাগরের জলস্তরের উচ্চতা বাড়াতে ততটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়নি।
গবেষণা চালানো হয়েছে বিশ্বের মোট ১৯ হাজার হিমবাহের উপর। গবেষকরা দেখিয়েছেন, বিশেষ করে ১৯৮৬ থেকে ২০১৬, এই ৩০ বছরে, বিশ্বের প্রায় সব প্রান্তের হিমবাহগুলির গলে যাওয়ার গতি বেড়ে গিয়েছে উল্লেখযোগ্য ভাবে।
বছরে সাড়ে ৩৩ হাজার কোটি টন বরফ গলছে হিমবাহের…
আনন্দবাজার ডিজিটালের পাঠানো প্রশ্নের জবাবে মূল গবেষক মাইকেল জেম্প ই-মেলে বলেছেন, “বিশ্বে এক বছরে গড়ে ৩৩ হাজার ৫০০ কোটি টন করে বরফ গলে যাচ্ছে হিমবাহগুলির। যার ফলে, সাগর, মহাসাগরের জলস্তর উপরে উঠছে বছরে গড়ে ১ মিলিমিটার করে। ইউরোপের আল্পস পর্বতমালায় হিমবাহগুলিতে যত বরফ রয়েছে, ফিবছর, তার তিন গুণ বরফে বিশ্বের বিভিন্ন হিমবাহ থেকে গলে জল হয়ে যাচ্ছে।
তার ফলে, সমুদ্রের জলস্তর ৩০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে গত ৩০ বছরে।”
দিনকয়েক আগে নাসার একটি গবেষণা জানিয়েছিল, উষ্ণায়ন ও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বিশ্বে সমুদ্রের জলস্তর ফিবছর গড়ে বাড়ছে ৩ মিলিমিটার করে।
বিশিষ্ট হিমবাহ বিশেষজ্ঞ এম রবিচন্দ্রন জানাচ্ছেন, এর ফলে আর কয়েক বছরের মধ্যেই বিশ্বের কয়েকটি দেশের বড় ও মাঝারি সব হিমবাহই গলে জল হয়ে যাবে।
তাদের মধ্যে রয়েছে পেরু ও ভেনেজুয়েলার মতো দেশ। ভেনেজুয়েলায় আর একটি হিমবাহই পড়ে রয়েছে, যা এখনও পুরোপুরি গলে যায়নি। হিমবাহটির নাম- ‘পিকো হামবোল্ট’। (শেষ)
[সূত্র : ডয়চে ভেলে]

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট