চট্টগ্রাম শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪

আহ্বায়ক জেলে, বেঁচে নেই সদস্য সচিবও

উ. জেলা বিএনপি নেতৃত্ব সংকটে

অন্তঃকোন্দলের কারণে দ্বিধাবিভক্ত কর্মসূচি পালন করা হয় পৃথকভাবে হতাশায় ভুগছেন তৃণমূলের কর্মীরা

মোহাম্মদ আলী

১৩ মে, ২০১৯ | ২:৩৬ পূর্বাহ্ণ

দলীয় কোন্দল ও নেতৃত্ব সংকটে ভুগছে উত্তর জেলা বিএনপি। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে দলের আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর কারাগারে থাকা এবং সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাছানের মৃত্যুর পর উত্তরে এ সংকট তৈরি হয়েছে। এ কারণে দলের সাংগঠনিক কর্মসূচিগুলো যথাযথ পালন করা যায় না।
চট্টগ্রামে দলের তিন সাংগঠনিক কমিটির মধ্যে অন্যতম উত্তর জেলা বিএনপি। উত্তর জেলার ৭ উপজেলা ও ৯ পৌরসভা নিয়ে এ কমিটি গঠিত। কমিটির অধীনে সংসদীয় আসন রয়েছে ৭টি। এ কারণে দলের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কমিটি এটি। কিন্তু দলীয় কোন্দল ও নেতৃত্ব সংকটের কারণে অনেকটা স্থবির হয়ে পড়েছে বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম।
বিএনপির একটি সূত্র জানায়, ২০১৪ সালে আসলাম চৌধুরীকে আহ্বায়ক ও কাজী আবদুল্লাহ আল হাসানকে সদস্য সচিব করে উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র। এর মধ্যে ২০১৬ সাল থেকে আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরী কারাগারে রয়েছেন। সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান মৃত্যুবরণ করেন ২০১৮ সালের ৮ জানুয়ারি। এ অবস্থায় নেতৃত্বশূন্য হয়ে পড়ে উত্তর জেলা বিএনপি। এছাড়া কোন্দলের কারণে উত্তর জেলা বিএনপিতে দ্বিধাবিভক্তি রয়েছে। এ কারণে দলের কর্মসূচি পালন করা হয় আলাদাভাবে। দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও উত্তর জেলার আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি গ্রুপ এবং কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান অনুসারীদের অপর একটি গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে। এর মধ্যে আসলাম চৌধুরীর অনুসারীদের মাঠে সক্রিয় দেখা যায় বেশি। অপরদিকে কাজী আবদুল্লাহ আল হাসানের অনুসারীরা মাঝেমধ্যে দলের কর্মসূচিগুলো পালন করে থাকেন। এতে উত্তর জেলা বিএনপি এখন অনেকটা দিকহারা নৌকার মতো। সেখানে যে যার মতো করে সাংগঠনিক কর্মসূচি পালন করছেন। এতে হতাশায় ভুগছেন তৃণমূলের কর্মীরা।
বিএনপির একটি সূত্র জানায়, উত্তর জেলা বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম অনেকটা আসলাম চৌধুরী নির্ভর হয়ে পড়েছে। তবে তিনি জেলে যাওয়ার পর দলের মধ্যে ঐক্যবদ্ধ তেমন কোনো কর্মসূচি দেখা যায় না। মাঝে মাঝে দুই একটি কর্মসূচি দেখা গেলেও তা নগরীর নুর আহমেদ সড়কস্থ দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনকে ঘিরে পালন হয়ে থাকে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘দলকে আরো উজ্জীবিত করতে প্রতিটি উপজেলা কমিটির সাথে সভা করা হচ্ছে। উপজেলা ও পৌরসভা কমিটিগুলো আরো সক্রিয় হলে উত্তর জেলা বিএনপির কমিটির মধ্যে একটা চাঙ্গাভাব চলে আসবে।’

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট