চট্টগ্রাম সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪

প্রথম পক্ষের স্ত্রী-সন্তানদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

সীতাকু-ে জীবিত ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে টাকা-সম্পদ আত্মসাত

সৌমিত্র চক্রবর্তী হ সীতাকু-

৮ মে, ২০১৯ | ২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সীতাকু-ে ছানাউল্লাহ নামক এক ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে তার এফডিআর এর ১০ লাখ টাকা ও বাড়ি দখলের অভিযোগ উঠেছে ১ম স্ত্রী ও সন্তানদের বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী। লিখিত বক্তব্যে তিনি দাবি করেন, তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধা। তিনি সলিমপুর ইউনিয়নের উত্তর সলিমপুর তুলাতলী এলাকার ছানা মঞ্জিলের মালিক। ১৯৯৫ সাল থেকে তিনি আমেরিকা প্রবাসী ছিলেন। সেখানে থাকা অবস্থায় ২০১১ সালে তাকে মৃত দেখিয়ে, সই জাল করে তার ১ম স্ত্রী পারভীন আক্তার ও সন্তান সলিমুল্লাহ পারভেজ, মো. শওকত উল্লাহ ফরহাদ, কাইসারুল আলম, ফয়সাল, তসলিম, আসলাম, মোরসালিন, মাহাবুবুর রহমান, আশরাফ আলীরা তার চারতলা বাড়ি, এফডিআর এর ১০ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন সম্পদ আত্মসাত করেছেন। এসব বিষয়ে মামলা করার পর ৩টি মামলা তদন্ত শেষে পিবিআই সত্যতা পেয়ে তার পক্ষে রিপোর্ট দেয়। কিন্তু স্ত্রী-সন্তানরা তাকে নিজের বাড়িতে থাকতে দিচ্ছেন না। সম্প্রতি সীতাকু-ের এডিশনাল এসপি শম্পা রানী সাহা তাকে চারতলা বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে থাকার ব্যবস্থা করে দিলেও সেখানে প্রতিনিয়ত মানসিক নির্যাতন করে

যাচ্ছেন ১ম স্ত্রী-সন্তানরা। তাকে পানি সরবরাহ বন্ধসহ নানা অসুবিধা রেখে তাড়িয়ে দিতে চেষ্টা করছেন। এসবের প্রতিকারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন ২য় স্ত্রী তাছলিমা আক্তার, ছেলে সামাউল্ল্যাহ সামাদ, মেয়ে সালমা আক্তার সায়মা। এদিকে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ১ম স্ত্রী পারভীন আকতার পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, আমরা কখনোই তাকে মৃত বানাইনি। ব্যাংকের কাগজে ভুলবশত মৃত উঠেছে। এ কারণে তিনি এসব বলছেন। তিনি দাবি করেন আসলে ছানাউল্লাহ একজন ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা। ভুয়া নামে একাধিক পাসপোর্ট ব্যবহার করেন তিনি। অনেকগুলো বিয়ে করেছেন। এসব কারণে তার সাথে দুরত্ব হয়েছে। অভিযোগগুলো মিথ্যা বলে দাবী করেন তিনি।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট