চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

পূর্বকোণ সম্পাদকের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ

‘সবুজ শহর’ গড়বেন ইউনুছ

নিজস্ব প্রতিবেদক 

১৫ মে, ২০২৪ | ৫:৩০ অপরাহ্ণ

বন্দরনগরী চট্টগ্রামকে সবুজ শহর হিসেবে গড়ে তুলতে একগুচ্ছ পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) নতুন চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছ। গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় পূর্বকোণ সেন্টারে দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদক ডা.ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন একাত্তরের রণাঙ্গণের এই সৈনিক। এ সময় পরিকল্পনা বাস্তবায়নে গণমাধ্যমের সহায়তাও চান তিনি।

 

 

নতুন সিডিএ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুছ জানান, সিডিএ যখন কোনো ভবনের নকশার অনুমোদন দেয়- তখন কতুটুকু জায়গা ছাড়তে হবে, কোথায় কি করতে হবে তা উল্লেখ থাকে। কিন্তু কেউ নকশা অনুযায়ী ভবন করেন না। জায়গা ছাড়েন না। এখন আমরা অনুমোদন দেওয়ার আগেই নকশায় যতটুকু জায়গা ছাড়তে বলা হবে, ততটুকু জায়গায় গাছ লাগাতে উৎসাহিত করবো।

 

 

নতুন প্রকল্পগুলোতেও সবুজায়নের উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার কথা জানিয়ে সিডিএ চেয়ারম্যান বলেন, সামনের দিনগুলোতে সিডিএ প্লট বা ফ্ল্যাটের যে প্রকল্প নেবে- সেখানে গাছের জন্য বড় জায়গা রাখা হবে। গাছ লাগানো হবে। অল্প দিনের মধ্যেই বন বিভাগের সঙ্গে বসে নগরীর বিভিন্ন সড়কের দুই পাশে আমরা গাছ লাগানো শুরু করবো।

 

 

টাইগার পাস এলাকায় ইউসুফ চৌধুরী সড়কে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের র‌্যাম্প তৈরির সময় গাছ কাটা হবে না জানিয়ে মোহাম্মদ ইউনুছ বলেন, গাছও থাকবে। র‌্যাম্পও থাকবে। এ নিয়ে শীঘ্রই আমরা রেলওয়েসহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে বসবো। কোথাও কোনো কাজে যদি একটি গাছ কাটাও লাগে আমরা আগে একশটা গাছ লাগাবো। উন্নয়ন পরিকল্পনা হতে হবে সুদূরপ্রসারী। পাহাড়-গাছকে পৃথিবীর পেরেক স্মরণ করে সিডিএ চেয়ারম্যান বলেন, অকারণে এসব কাটলে ক্ষতিগ্রস্ত আমরাই হবো। পাহাড় কাটা বন্ধে আমার হাতে আইনানুগ ক্ষমতা কম। তবে আমি জেলা প্রশাসন এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের সহায়তা নেব। পাহাড়ের জায়গায় ভবন তৈরির জন্য কোনো নকশার অনুমোদন দেব না। যেখানে পাহাড় কাটা হবে সেখানে গাছ লাগিয়ে দেব।

 

 

 

নগরীর উন্নয়নে সব সংস্থা ও বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করবেন জানিয়ে তিনি বলেন, আমার মধ্যে কোনো ইগো নেই। দায়িত্ব নেওয়ার পর চসিক-সিডিএর দূরত্ব এক সেকেন্ডে দূর করেছি। সবাইকে নিয়ে বসে কাজ করার উদ্যোগ নিয়েছি। নগরীকে সাজাতে সব পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমি বিশেষজ্ঞদের নিয়ে বসবো। তাদের মতামত অনুযায়ী আমি কাজ করবো।

 

 

প্রধানমন্ত্রী বিশেষ অ্যাসাইনমেন্টসহ সিডিএ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়েছেন উল্লেখ করে মোহাম্মদ ইউনুছ বলেন, সিডিএ চেয়ারম্যান হিসেবে আমার নাম প্রস্তাব করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। যদি কাজ করতে না পারি তার আশাভঙ্গ হবে। তাই আমি জান-প্রাণ দিয়ে কাজ করবো। মানুষের ভালোবাসা নিয়েই কবরে যাওয়া ছাড়া আর কিছু চাওয়ার নেই।

 

 

নিজের দায়িত্ব পালনকালে গণমাধ্যমের সহায়তা চেয়ে নতুন সিডিএ চেয়ারম্যান বলেন, পূর্বকোণ আমার ঘরের পত্রিকা। চট্টগ্রামের উন্নয়নে পূর্বকোণ যেভাবে ভ‚মিকা রাখছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। আমি আশা করবো পূর্বকোণ সিডিএর ভালো ভালো কাজগুলো প্রচার করবে। ভুল-ত্রুটি হলে দেখিয়ে দেবে।

 

 

চট্টগ্রাম শহরকে সাজাতে নতুন সিডিএ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুছের পরিকল্পনার প্রশংসা করেন দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদক ডা. ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরী। এ সময় তিনি নতুন সিডিএ চেয়ারম্যানের সাফল্য কামনা করেন। সিডিএর ভালো কাজে পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

পূর্বকোণ/এসএ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট