চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সর্বশেষ:

প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রফেশনাল না হলে সাফল্য আসবে না

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ | ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ

আমরা যখন ইউনিভার্সিটিতে পড়াতে যাই, তখন দেখি যেসব শিক্ষার্থী প্রান্তিক এলাকার, তাদের হাতেকলমে কোন শিক্ষাই নেই। ইউটিউবে যদি আপনি বাইরের দেশের একই বয়সের অন্যান্য স্টুডেন্টদের দেখেন, তাহলে দেখবেন তারা হাতেকলমে কতটা শিক্ষিত। ছোট ছোট প্রজেক্ট করে তারা ইউটিউবে দিচ্ছে, যেটা থেকে হাজার হাজার মানুষ শিখছে।

কিন্তু সেই তুলনায় আমরা যখন আমাদের শিক্ষার্থীদের এ প্রশ্নগুলো করি বা জিনিসগুলো জানতে চাই, তখন আমরা সাধারণত দেখতে পাই তারা আসলে কতটুকু পিছিয়ে আছে। তাই আমি খুব আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছি এই শিক্ষানীতি থেকে যে ছাত্রছাত্রীগুলো আসবে, তারা যখন আমাদের ক্লাসে আসবে তখন কেমন হবে।
আমরা যখন ক্লাসে নতুন কোন কোর্স পড়াতে যাই, আমি জানি আমার স্টুডেন্টরা সাফার করবে। কারণ আমি নিজেও সাফার করি। আমাদের এই শিক্ষানীতির এবার প্রথম বছর যাচ্ছে। আমি ধারণা করছি সেকেন্ড ইয়ার বা থার্ড ইয়ারে যখন যাবে, তখন আরও ম্যাচিউর হবে এবং আশা করছি এটা অনেক ভালো করবে।

আমি সাধারণত প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রাইভেট স্কুলগুলোর প্রশংসা করি। কারণ আমাদের দেশে যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আছে, সেগুলোর যে জবাবদিহিতার সুযোগটা, সেটা কমপারেটিভলি কম। আমরা যে বলি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ভালো করছে না, এটাও কিন্তু একধরনের জবাবদিহিতা। তাদের একাউন্টিবিলিটি আছে বলেই তো আমরা এখানে এসেছি।

 

বাংলাদেশের প্রথম সারির প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিগুলোর দিকে তাকালে আপনি দেখবেন, তাদের যে ফ্যাকাল্টি প্রোফাইলগুলো আছে, সেগুলো অনেক নর্থ আমেরিকান ইউনিভার্সিটির ফ্যাকাল্টি প্রোফাইলের থেকেও ভালো। তাদের শিক্ষকদের যেসব ডিগ্রি আছে, অনেক নর্থ আমেরিকান ইউনিভার্সিটি ওই ডিগ্রির শিক্ষক পেতে ফাইট করে।

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট