চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সড়ক নিরাপত্তায় চাই সমন্বিত উদ্যোগ

‘সেফার রোডস, সেফার চট্টগ্রাম’ শীর্ষক সংলাপে মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৮ নভেম্বর, ২০২৩ | ৩:২৮ অপরাহ্ণ

সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠানকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। পথচারী ও গাড়ি চালকদের সচেতন হতে হবে। গতকাল সোমবার ওয়ার্ল্ড ডে অব রিমেমব্রেন্স ফর রোড ট্রাফিক ভিকটিমস দিবস উপলক্ষে পূর্বকোণ সেন্টারের ইউসুফ চৌধুরী কনফারেন্স হলে ‘সেফার রোডস, সেফার চট্টগ্রাম’ শীর্ষক গোলটেবিল সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী এসব কথা বলেন।

 

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, ব্লুমবার্গ ফিলানথ্রপিস ইনিশিয়েটিভ ফর গ্লোবাল রোড সেফটি (বিআইজিআরএস) ও ভাইটাল স্ট্রাটেজিস যৌথভাবে এই গোল টেবিল সংলাপের আয়োজন করে। ইয়ং পাওয়ার ইন সোশ্যাল এ্যাকশন ইপসার সহযোগিতায় আয়োজিত এই সংলাপে মেয়র আরও বলেন, অন্যের ওপর দোষারোপ না করে আমাদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। নগরীর যোগাযোগ ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফেরাতে সিএমপির ট্রাফিক বিভাগের সাথে এক হয়ে কাজ করবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। সড়ক, ফুটপাতসহ নতুন অবকাঠামো নির্মাণের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠানের পরামর্শ গুরুত্ব সহকারে নেয়া হবে।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিএমপি কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় বলেন, আইনের প্রয়োগ নয়, আইন পালনকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। জনগণ সচেতন না হলে প্রশাসন বা কোন সংস্থার পক্ষে দুর্ঘটনা প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। সাধারণ মানুষকে আইন মানতে হবে। নগরীর যোগাযোগ ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফেরাতে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে ট্রাফিক বিভাগ। কিন্তু দিন শেষে সাধারণ মানুষের কাছে তারাই ভিকটিম। এই মানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে।

 

সংলাপ আয়োজনে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে দি পূর্বকোণ লিমিটেডের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে আইনের যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। শুধু অবকাঠামো করলেই হবে না, ব্যবস্থাপনায় উন্নতি ঘটাতে হবে।

 

চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন সিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার জয়নুল আবেদীন, সিএমপির এডিসি (পিআর) স্পিনা রানী প্রামানিক, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. অং সুই প্রু মারমা, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক তৌহিদুল ইসলাম, নিরাপদ সড়ক চাই, নিসচার কেন্দ্রীয় মহাসচিব লিটন আরশাদ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি চৌধুরী ফরিদ, ভাইটাল স্ট্রাটেজিসের কারিগরি পরামর্শক আমিনুল ইসলাম এবং চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত তিন পুলিশ সদস্যের পরিবারের সদস্যরা। স্বাগত বক্তব্য দেন চসিকের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শাহীন-উল-ইসলাম চৌধুরী। পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে দিবসের গুরুত্ব তুলে ধরেন বিআইজিআরএস চট্টগ্রামের সার্ভেইল্যান্স কোঅর্ডিনেটর কাজী সাইফুন নেওয়াজ এবং সঞ্চালনা করেন বিআইজিআরএস চট্টগ্রামের সমন্বয়কারী লাবিব তাজওয়ান উৎসব। উল্লেখ্য, জাতিসংঘ এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা স্বীকৃত এ দিবসটি গত ১৯ নভেম্বর পালিত হয়।

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট