চট্টগ্রাম রবিবার, ২৩ জুন, ২০২৪

প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রস্তুতি নিচ্ছে আঞ্চলিক দলগুলোও

মো. জহুরুল আলম, খাগড়াছড়ি

১২ নভেম্বর, ২০২৩ | ১২:৩৬ অপরাহ্ণ

২৯৮নং খাগড়াছড়ি আসনে তিন দলের বাইরে আঞ্চলিক দলগুলোও দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

 

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা সামনে রেখে খাগড়াছড়ি আসনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থীরা নানা কৌশলে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, বিভিন্ন ধর্মীয় পার্বণ, উৎসবে তাদের গ্রহণযোগ্যতা তুলে ধরতে দলীয় নেতাকর্মীরা প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। হাট-বাজারে ও চায়ের টেবিলে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

 

আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির পাশাপাশি খাগড়াছড়িতে আঞ্চলিক দলগুলোও আলোচনায় রয়েছে। সর্বশেষ ২০১৮ সালের নির্বাচনে এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি টানা দু’বার নৌকা প্রতীক নিয়ে এ জেলায় জয়লাভ করেন।

 

জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতিও কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা। আবারও তিনি দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর তদবির শুরু করেছেন। তিনি বিভিন্ন সমাবেশে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন কর্মকা- নিয়ে প্রচার করছেন। পাশাপাশি আগামী নির্বাচনে দলীয় সভানেত্রী যাকে মনোনয়ন দেবেন তার পক্ষেই তিনি নির্বাচন করবেন বলেও জানাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে প্রচারণায় রয়েছেন বর্তমান সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি বাসন্তী চাকমা, আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রণবিক্রম ত্রিপুরা, তারই সহোদর সাবেক পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের সচিব নববিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, সহ-সভাপতি সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজ্যরি চৌধুরী ও সহ-সভাপতি সমীর দত্ত চাকমা। তারা দলের কেন্দ্রীয় পর্যায়ে দৌড়ঝাঁপের পাশাপাশি তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে জনসংযোগ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে নানাভাবে তদবির ও অনেকেই তৃণমূলের বঞ্চিত নেতাকর্মীদের এক করার জন্য নানা কৌশলে কাজ করে যাচ্ছেন।

 

বিএনপি থেকে বর্তমান জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি আবদুল ওয়াদুদ ভূঁইয়া প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় এগিয়ে রয়েছেন। এছাড়া আরও যাদের নাম আলোচনায় আসছে তারা হলেন- জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএন আবছার ও সহ-সভাপতি প্রবীণ চন্দ্র চাকমা।

 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে ছাড়া ও একদফা দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার কথা বললেও তলে তলে প্রস্তুতি নিয়ে রাখছেন দলীয় নেতারা। বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালনে তারা এখন খুব তৎপর।

 

জাতীয় পার্টির চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি সোলায়মান শেঠ দলীয় প্রার্থী হিসেবে দলীয় ও রাজনৈতিক কর্মকা-  চালিয়ে যাচ্ছেন। জেলার বিভিন্ন উপজেলায়ও তাদের দলীয় কার্যক্রমের পাশাপাশি নানাভাবে সামাজিক উৎসবগুলোতে দলীয় নেতারা অংশ নিচ্ছেন।

 

পাহাড়ের আঞ্চলিক দলগুলোর প্রার্থীরা মূলত স্বতন্ত্র হিসেবে এখানে সংসদ সদস্য প্রার্থী হন। তবে সম্ভাব্য প্রার্থীদের পরিচিতি আগাম জানা কঠিন। এসব দল নির্বাচনে হঠাৎ করেই তাদের প্রার্থী মনোনয়ন দেয়। ফলে তাদের আগাম প্রার্থীর পরিচয় মেলে না।

 

জাতীয় সংসদের ২৯৮ নম্বর খাগড়াছড়ি আসনটি জেলার ৯টি উপজেলা নিয়ে গঠিত। এ জেলায় শুধু একটি আসন। মোট ভোটার সংখ্যা পাঁচ লাখ দুই হাজার ৯৭। এর মধ্যে পুরুষ দুই লাখ ৬৫ হাজার ১৮২ জন ও নারী ভোটার দুই লাখ ৫৫ হাজার ৯১৫ জন। চেঙ্গী, মাইনী, ফেনী উপত্যকা নিয়ে খাগড়াছড়ি ২৯৮নং আসন। একদিকে বিএনপির একদফা আন্দোলন, অন্যদিকে শান্তি সমাবেশ নিয়ে আওয়ামী লীগ ব্যস্ত সময় পার করছে।

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট