চট্টগ্রাম সোমবার, ০৮ মার্চ, ২০২১

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

যে পথে নিত্য উত্যক্তের শিকার নারীরা, দেখার কেউ নেই

প্রতিদিন সকালে এ পথ দিয়ে যাতায়াত করে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী, সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের সেবিকা, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। প্রবর্তক মোড়ের পাশে আড্ডা দেয় কিছু তরুণ। যারা প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে বেলা বারটা পর্যন্ত আবার বিকেল পাঁচটার পর থেকে বসে থাকে। তারা আড্ডার আড়ালে কর্মস্থল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের যাতায়াতকারী মেয়েদের নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছে। তাদের এমন আচরণে অতিষ্ঠ পথচারীগণ। অথচ পাশেই আছে পুলিশ বক্স। পুলিশের নাকের ডগায় প্রতিদিনই এমন ঘটনা ঘটে থাকলেও নির্বিকার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। যেন এসব দেখার কেউ নেই।
মেডিকেল এলাকাটি নগরীর অন্যান্য এলাকার চেয়ে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিন এখানে বহু নারী-পুরুষের পদচারণা। প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও কয়েকটি প্রাইভেট হাসপাতালে কর্মরত সেবিকাসহ নারীরা এপথ দিয়েই যাতায়াত করে। মূলত প্রবর্তক মোড় থেকে নগরীর চকবাজার, পাঁচলাইশ, দুই নম্বর গেট ও গোলপাহাড় মোড় এলাকায় বিভিন্ন কাজে যাতায়াত করেন অসংখ্য নারী। ব্রিজ নির্মাণের কাজ চলায় পুলিশ বক্সের বিপরীতে সবাইকে হেঁটে যাতায়াত করতে হয়। এসময় বখাটেরা নারীদের উদ্দেশ্য করে নানা অশালীন মন্তব্য করতে থাকে।
মেডিকেল এলাকার একটি প্রাইভেট হাসপাতালের সেবিকা রুপা দাশ বলেন, আমি থাকি বায়েজিদে। প্রতিদিন সকালে আমাদের ডিউটি থাকেনা। কিন্তু যেদিন সকালে ডিউটি থাকে সেদিন যখন আসি এখানে বসে থাকা বখাটে ছেলেগুলো নানা অশালীন মন্তব্য করে।

এই যেমন দুইজনে গিটার বাজাবে আর বাকিরা গান ধরে। কেউ শিষ দেয়, কেউ বাজে ইঙ্গিত করে। বিষয়টি আমাকে খুব পীড়া দেয়। কোথায় আছি আমরা? কবে আমাদের চলার পথ কবে নির্বিঘœ হবে? আমরা দ্রুত এসব বখাটেদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। যাতে আর কোন মো-বোন এ পথে অশালীন মন্তব্যের শিকার না হয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 237 People

সম্পর্কিত পোস্ট