চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২৪

সর্বশেষ:

বৃহস্পতিবার প্রকাশ্য নিলামে তোলা হবে সাড়ে ২৫ টন আপেল

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ অক্টোবর, ২০২৩ | ১২:০৩ অপরাহ্ণ

এবার চট্টগ্রাম কাস্টমসের প্রকাশ্য নিলামে তোলা হচ্ছে সাউথ আফ্রিকা থেকে আনা সাড়ে ২৫ টন আপেল। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) সকাল সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রাম কাস্টমসের অকশন সেডে ওই আপেল প্রকাশ্য নিলামে তুলবে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। নিলামের তথ্য অনুযায়ী, ১ হাজার ১৮৬ কার্টনে থাকা ২৫ হাজার ৪৯৯ কেজি ওজনের সেই আপেলের সংরক্ষিত মূল্য ধরা হয়েছে ৪২ লাখ ৩৫ হাজর ৫৪৯ টাকা। অর্থাৎ কেজি প্রতি দর দাঁড়ায় ১৬৬ টাকা। এদিকে নিলামে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা বাড়াতে আজ (বুধবার) নিলাম এলাকার দুই কিলোমিটারের মধ্যে মাইকিং করে প্রচারণার ব্যবস্থা করেছে কাস্টমসের নিলাম শাখা।

 

কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, নগরীর স্টেশন রোডের ফল ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান মদিনা বাণিজ্যালয় সাউথ আফ্রিকা থেকে গত এপ্রিলে ৪০ ফুটের একটি রেফার কনটেইনারে (হিমায়িত রেফ্রিজারেটেড) করে ২৫ হাজার ৪৯৯ কেজি আপেল আমদানি করে।

 

কিন্তু আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের মালিক মো. জাকির হোসেন পূর্বকোণকে জানান, ওই সময়ে হঠাৎ ফল আমদানির শুল্ক প্রায় ৪০ শতাংশের মতো বাড়িয়ে দেয় সরকার। এছাড়া ওই ফল এপ্রিলের শুরুর দিকে আসার কথা থাকলেও আসে এপ্রিলের শেষে। তাই ফলের মান কমে যাওয়ার শংকা ছিল। পাশাপাশি শুল্ক বাড়ায় আর বন্দরের বাড়তি খরচ না করে সেই চালান খালাস করা হয়নি। পুরো এলসির টাকাই লস গেছে বলে জানায় সেই আমদানিকারক।

 

পরে নিয়ম অনুযায়ী বন্দর কর্তৃপক্ষ নিউমুড়িং কনটেইনার টার্মিনালে থাকা ওই কনটেইনার নিলামের জন্য ১২ জুন আরএল তালিকাভূক্ত করে। এবার সেই চালানের আপেল আরএল ভূক্ত হওয়ার ৪ মাস পর প্রকাশ্য নিলামে বিক্রির জন্য নিলাম ডেকেছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

 

এদিকে, চট্টগ্রাম কাস্টমসে নিয়মিত নিলামে অংশগ্রহণকারী একাধিক বিডার বলছেন, আপেলের চালান এসেছে এপ্রিল মাসে। এখন অক্টোবর। প্রায় ৬ মাস কনটেনারে পড়ে আছে ফলগুলো। তাই অধিকাংশই পচে যাওয়ার কথা। হয়তো রিফ্রেজারেটর কনটেইনারে থাকায় অল্প কিছু আপেল ভালো থাকতেও পারে।

 

প্রসঙ্গত, গত ৯ অক্টোবর ভারত থেকে আমদানিকৃত ২৭ হাজার ৯৮০ কেজি মহিষের মাংসের প্রকাশ্য নিলামে সর্বোচ্চ দর উঠেছিল ৪ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কেজি মাংসের সর্বোচ্চ দাম উঠে ১৪ টাকা ৩০ পয়সা। যদিও চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ ওই মাংসের সংরক্ষিত দাম নির্ধারণ করেছিল ২ কোটি ৪৪ লাখ ৮৪ হাজার ৩৯৩ টাকা। যার কেজি প্রতি দাম দাঁড়ায় ৮৭৫ টাকা। কিন্তু চট্টগ্রাম কাস্টমসের নিলামে কেজি প্রতি ৮৭৫ টাকার সেই মাংসের সর্বোচ্চ দাম উঠে ১৪ টাকা। যা সংরক্ষিত মূল্যের মাত্র ১ দশমিক ৬৩ শতাংশ। এবার আপেলে ভাগ্যে কি রয়েছে তা জানা যাবে নিলামের দিন।

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট