চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০২৪

সর্বশেষ:

অপরিকল্পিত উন্নয়ন কাজের ভোগান্তিতে হালিশহরবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ অক্টোবর, ২০২৩ | ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ

হালিশহর নিউ আই ব্লকের বাসিন্দা এরশাদুল আবেদিন। দু’দিন আগে স্ত্রীর সাথে আগ্রাবাদ যাচ্ছিলেন পারিবারিক কাজে। কিন্তু আই ব্লকের সামনে এসে রাস্তার উপর গড়ে ওঠা বাজারের কারণে তাদের গাড়িটি যানজটে আটকে যায়। একটু এগুতেই ওয়াসার উন্নয়ন প্রকল্পের কাজের কারণে আবারও বাধা। এরপর গরীবে নেওয়াজ স্কুলের সামনে গিয়ে দেখলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের রাস্তা সংস্কারের জন্য পুরো সড়ক বন্ধ। বিকল্প হিসেবে বিজিবি মার্কেট রোড দিয়ে পোর্ট কানেকটিং রোডে উঠতে গিয়ে দেখলেন সে সড়কে চলছে সংস্কার কাজ। তারপরও এই ভাঙা সড়ক দিয়ে কোনভাবে মূল সড়কে উঠলেও  স্ত্রী হয়ে পড়লেন অসুস্থ। নির্দিষ্ট গন্তব্যে আর যেতে পারলেন না তিনি। স্ত্রীকে নিয়ে চলে গেলেন ডাক্তারের কাছে। অপরিকল্পিত উন্নয়ন কাজ এবং রাস্তার উপর গড়ে উঠা অবৈধ বাজারের কারণে এরশাদুলের মতো এ সড়কে চলাচলকারি হাজার হাজার মানুষকে প্রতিদিন চরম ভোগান্তি পেতে হচ্ছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের রাস্তা সংস্কার,  মূল সড়কে তিনটি স্পটে ওয়াসার চলমান সুয়ারেজ প্রকল্পের কাজ এবং ‘গোদের ওপর বিষফোঁড়া’র মতো রাস্তার পাশে অবৈধভাবে গড়ে উঠা বাজারেরকারণে প্রতিদিন  দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে হালিশহরের লক্ষাধিক বাসিন্দাকে।

 

গতকাল সরজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বিডিআর মাঠের পাশে, আইব্লক ১ নম্বর রোড মসজিদের সামনে এবং গরীবে নেওয়াজ স্কুলের সামনে তিনটি স্থানে পুরো রাস্তার একপাশ বন্ধ রেখে চলছে ওয়াসার সুয়ারেজ প্রকল্পের কাজ। অন্যদিকে গরীবে নেওয়াজ স্কুল থেকে পোর্ট কানেকটিং রোড় পুরোটাই বন্ধ চসিকের রাস্তা সংস্কারের জন্য। বিকল্প হিসেবে এখানাকার মানুষ বিজিবি মার্কেট রোড হয়ে মূল সড়কে চলাচল করে। কিন্তু সে সড়কও সংস্কার কাজের জন্য বেহাল অবস্থা। অন্যদিকে আই ব্লকে রাস্তার ওপর গড়ে উঠেছে অবৈধ বাজার। এসব কারণে হালিশহরের লক্ষাধিক মানুষকে প্রতিদিন অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। হালিশহর হাউজিং এস্টেটের অন্য ব্লকের বাসিন্দারা বিকল্প হিসেবে বেশি পথ পাড়ি দিয়ে নয়াবাজার এলাকা দিয়ে চলাচল করলেও আই ও জে ব্লকের বাসিন্দারা পড়েছেন সবচেয়ে বেশি সমস্যায়।

 

নিউ আই ব্লকের বাসিন্দা এরশাদুল আবেদিন বলেন, একই সাথে সবগুলো উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শুরু করার খেসারত দিতে হচ্ছে আমাদের। ওয়াপদা রোডটি সংস্কারের দাবি ছিল আমাদের। চলাচল বন্ধ রেখে সড়কটি উন্নয়নের কাজ চলছে। কিন্তু একই সাথে চলছে রাস্তার শেষ মাথায় স্কুলের সামনে কালভার্ট নির্মাণের কাজ। ফলে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে অন্য সড়কের যানচলাচল। বিকল্প হিসেবে  বিজিবি মার্কেটের সামনে দিয়ে জি ব্লক শাহী জামে মসজিদ পেরিয়ে  গোলচত্বর থেকে পোর্টকানেক্টিং রোডে যাওয়ার পথটি সংস্কার কাজের কারণে খানাখন্দে ভর্তি। প্রতিদিন এ পথে চলাচলকারী হাজার হাজার মানুষকে বিপাকে পড়তে হচ্ছে।

 

আর্টিলারি রোডের ব্যবসায়ী মো. মোসলেহ উদ্দিন দুলাল বলেন, সংস্কার কাজে চরম ভোগান্তিতে আমরা। হালিশহরের প্রধান সড়কটি বন্ধ। এরমধ্যে ওয়াসার উন্নয়ন কাজের কারণে তিনটি স্পটে সড়কের একপাশ বন্ধ। আই ব্লকের সামনে গড়ে ওঠা বাজারের কারণে সকাল ও সন্ধ্যায় যানজট লেগে থাকে। এছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শুরু ও বন্ধের সময় পুরো এলাকায় সবচেয়ে বেশি ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সংস্কার কাজের কারণে রাস্তার ধুলোবালিতে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন শিক্ষার্থীরা।

 

জে ব্লক সমাজ কল্যাণ পরিষদের উপদেষ্টা মোহাম্মদ শরীফ উদ্দিন দুলাল বলেন, উন্নয়ন কাজে লাভবান হব আমরা। কিন্তু এসব উন্নয়ন কাজ চলছে কোন পরিকল্পনা ছাড়াই। কেটে ফেলা হচ্ছে সড়ক। একই সাথে তিনটি স্পটে ওয়াসার উন্নয়ন কাজ চলায় বাধাগ্রস্ত হচ্ছে যান চলাচল। সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়েছেন আই ও জে ব্লকের বাসিন্দারা। কারণ এইচ ব্লকের মধ্যে দিয়ে যে সব বিকল্প সড়ক ছিল, সেখানকার বাসিন্দারা অজ্ঞাত কারণে সে সব সড়ক বন্ধ করে রেখেছে।  ফলে চরম দুর্ভোগ হালিশহরের বাসিন্দাদের। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এ পথে চলাচল করে থাকে। অথচ জনপ্রতিনিধিদের সে ব্যাপরে কোন ভ্রুক্ষেপ নেই।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট