চট্টগ্রাম শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪

ফাগুন হাওয়ায় এলো বসন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

ভোরের আলো ফুটতেই কোকিলের ডাক। বসন্ত এলো। কুয়াশার আঁচল সরিয়ে ঋতুরাজ সোনালি রোদে ভরে দিচ্ছে আকাশ। প্রাণের উষ্ণতা সঞ্চার করছে শীতে মৃতপ্রায় প্রকৃতিতে। শিমুল-পলাশ-অশোকের শাখা ভরে উঠেছে রক্তিম ফুলের সম্ভারে। মাঝে বয়ে যাওয়া দমকা হাওয়ায় দুলে উঠছে সেই কুসুমশোভিত শাখা।

 

সকালে রবীন্দ্রনাথের গানের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন জায়গায় বসন্তের উৎসব শুরু হয়েছে। কোথাও ভেসে আসছে, ‘ওরে ভাই ফাগুন বনে বনে’, কোথাও আবার শোনা যাচ্ছে ‘রাঙিয়ে দিয়ে যাও যাও যাও গো এ বার যাওয়ার আগে….।’

 

ঋতুর পালাবদলে শীত পেরিয়ে বসন্তের প্রথম দিনটি উৎসবপ্রেমী বাঙালি বসন্ত বরণের উৎসবে মেতেছে নগরীজুড়ে। বাসন্তী রঙা শাড়ি, মাথায় ফুলের মুকুট, হাতে-গলায় বসন্ত বরণের নানা সাজ। হাল্কা কুয়াশাঢাকা ভোর থেকেই সরব নগরীর বিভিন্ন এলাকা।

 

পহেলা ফাল্গুন বাঙালি সংস্কৃতির এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। এমনকি হিন্দুদের পৌরাণিক উপাখ্যান ও লোককথাগুলোতে এই উৎসবের উল্লেখ পাওয়া যায়। তবে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সময়কাল থেকেই শান্তিনিকেতনে বিশেষ নৃত্যগীতের মাধ্যমে বসন্তোৎসব পালনের রীতি চলে আসছে। শীতকে বিদায় জানানোর মধ্যদিয়েই বসন্তকে বরণ করে নিতে নগরে বিভিন্ন সংগঠন পালন করছে নানা অনুষ্ঠানের।

 

নগরীর শেখ রাসেল পার্কে বোধন আবৃত্তি পরিষদ, চট্টগ্রাম বসন্তবরণে আয়োজন করেছে বর্ণিল অনুষ্ঠানমালার। একক ও বৃন্দ আবৃত্তির পাশাপাশি বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহের শিল্পীদের পরিবেশনায় দলীয় সংগীত ও দলীয় নৃত্য পরিবেশন করা হচ্ছে। এছাড়া রবীন্দ্র, নজরুল, আধুনিক ও লোকগান পরিবেশন করবেন প্রথিতযশা সংগীতশিল্পীরা। কবিতা-নৃত্য গানে মেতে উঠেছে উৎসব প্রাঙ্গণ।

 

এছাড়া সিআরবির শিরিষতলার মুক্তমঞ্চ সকাল থেকে শুরু হয়েছে প্রমার বসন্ত উৎসব।

 

নগরীর আন্দরকিল্লা মোড়ে বোধন আবৃত্তি পরিষদ ও বোধন আবৃত্তি স্কুল ‘নিবিড় অন্তরতর বসন্ত এলো প্রাণে’ শিরোনামে বসন্তবরণ উৎসবের আয়োজন করে। এর মধ্যে রয়েছে শোভাযাত্রা, আবৃত্তি, সঙ্গীত, যন্ত্রসঙ্গীত, নৃত্য ও ঢোল বাদন।

পূর্বকোণ/পিআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট