চট্টগ্রাম বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

২৩ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কল্পলোক আবাসিক এলাকা দখলদারদের কবলে

নগরীর বাকলিয়া এলাকার কল্পলোক আবাসিক এলাকা অবৈধ দখলদারদের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। আবাসিকের কাঁচা বাজারের জায়গা, সড়কের একাংশ এবং খালি প্লটগুলো এখন অবৈধ দখলদারদের কবলে। দখলদাররা সিন্ডিকেট করে এসব জায়গা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে।

 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, আবাসিকের বাসিন্দাদের জন্য রাখা ২৪ কাটার কাঁচা বাজারের বড় একটি অংশ এখন দখলদারদের দখলে। বাজারের চারপাশে গড়ে উঠেছে ঝুপড়ি, টিনশেড ও বেড়া দিয়ে তৈরি স্থাপনা। এছাড়াও চলছে বালি ও ইটের ব্যবসা। অথচ সেই জায়গায় আবাসিকের মানুষের জন্য কাঁচা বাজার থাকার কথা। প্রায় ৪০০ ভবনের ৩০ হাজারের বেশি বাসিন্দা এখন বিপাকে পড়েছেন আবাসিকের বাজার নিয়ে। আবাসিকে স্থায়ী কোন বাজার না থাকায় কয়েক কিলোমিটার ঘুরে কালামিয়া বাজার কিংবা বহদ্দারহাট গিয়ে বাজার করতে হয়।

 

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, আবাসিকের এক ও দুই নম্বর রোডের ওপর গড়ে উঠেছে অর্ধশতাধিক ঝুপড়ি। সেখানে রাত-দিন চলে বখাটেদের আড্ডা। গভীর রাতে চলে নানা মাদক সেবনও। অবৈধ স্থাপনার কারণে ৪০ ফুটের রোড এখন ২৫ ফুটে চলে এসেছে। এতে ব্যাহত হয় চলাফেরা এবং যান চলাচল।

 

কল্পলোক সমাজ কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন আশপাশের কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি ও রাজনৈতিক পরিচয়ে আবাসিকে অবৈধভাবে স্থাপনা গড়ে তুলেছে। আমরা কল্পলোক সমাজ কল্যাণ সমিতির পক্ষে এ নিয়ে একাধিকবার আপত্তি জানিয়েছি কিন্তু অবৈধ দখলদাররা তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিচ্ছে না। এ বিষয়ে আমরা বাকলিয়া থানায়ও অভিযোগ করেছি। এছাড়া, সিডিএ কোন উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা না করায় আবাসিকের বাসিন্দারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

 

জানতে চাইলে কল্পলোক আবাসিক প্লট ও ফ্ল্যাট মালিক সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. সফিকুল আলম জানান, কল্পলোপ আবাসিকের কাঁচা বাজারের জায়গা, সড়কের একাংশসহ বিভিন্ন জায়গা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি। অবৈধ দখলদারদের উঠতে বললেও তারা উঠছে না। উল্টো আবাসিকের ভবন মালিকদের বিভিন্ন হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আশপাশে কোন বাজার না থাকায় আবাসিকের বাসিন্দাদের বাজার করতে নানা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এসব অবৈধ দখলদারদের ব্যাপারে সিডিএ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

 

জানতে চাইলে সিডিএ’র প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শাম্স বলেন, সিডিএ’র আবাসিক বা সিডিএ’র জায়গায় কোন অবৈধ স্থাপনা থাকার সুযোগ নেই। আমরা শীঘ্রই কল্পলোক আবাসিকের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ব্যবস্থা নিব।

 

পূর্বকোণ/আর

 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট