চট্টগ্রাম রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ৩:২২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম বন্দর হাসপাতলে হঠাৎ ১১৯ কর্মী ছাঁটাই, প্রতিবাদে মানববন্ধন

কোন ঘোষণা ছাড়াই চট্টগ্রাম বন্দর হাসপাতালে ১১৯ জনকে অব্যাহতি দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে করোনাযোদ্ধারা।

 

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে বন্দর কর্তৃপক্ষের চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়ার কারণ জানতে চেয়ে মানববন্ধনও করেন তারা।

 

মানববন্ধনে অংশ নেয়া ওয়ার্ডবয় আনিসুল হক পূর্বকোণকে বলেন, ২০২০ সালের করোনাকালীন সময়ে হাসপাতালে ডাক্তার-মেডিকেল এসিট্যান্ট, নার্স, আয়া, ক্লিনার নিয়োগ দেওয়া হয়। এরপর থেকে আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা রোগীদের সেবা দিয়ে আসছি। গতকাল থেকে আমাদের অব্যাহতি পত্র দেয়া শুরু করে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

 

তিনি আরও বলেন, সরকার করোনা ওয়ার্ড বন্ধ করে দিতে বলেছে—আমাদের এমনটাই জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। অথচ সরকার এ ধরনের কোন সিদ্ধান্তই নেয়নি। তারপরও বিনা নোটিশে আমাদের চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। এখন আমাদের সংসার কিভাবে চলবে। আমাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি আমরাই। বন্দরে এখনো অনেক শূন্য পদ রয়েছে। শূন্য পদে আমাদের বহাল রাখা হোক এটাই আমাদের দাবি।

 

জানা গেছে, করোনা রোগীদের সেবার উদ্দেশ্যে ২০২০ সালের ১৮ জুন থেকে শুরু করে ২৪ জুন পর্যন্ত ১৫৯ জনকে বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেয় চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে মেডিকেল অফিসার, সিনিয়র স্টাফ নার্স, স্প্রে ম্যান, কুক, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (প্যাথলজি), ওয়ার্ড বয়, আয়া, নমুনা সংগ্রহকারী, সহকারী কুক, মেডিকেল এসিট্যান্ট, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট ও পরিচ্ছন্নতাকর্মী রয়েছে।

 

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন) মো. মমিনুর রশিদ পূর্বকোণকে বলেন, কোভিড পরিস্থিতিতে তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। করোনা সংক্রমণের হার কমে যাওয়ায় আমরা তাদেরকে অব্যাহতি দিয়েছি। আর ওদের নিয়োগে অস্থায়ী নিয়োগ সেটা বলা ছিল।

 

কোভিড ওয়ার্ড বন্ধে সরকারের কোন ঘোষণা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বিলেন, করোনা পরিস্থিতি এখন আগের মতো নেই। কাজেই তাদেরকে অব্যাহতি দিয়েছি। আর আমাদের বর্তমান করোনা পরিস্থিতি সামলানোর মত লোকবল রয়েছে।

পূর্বকোণ/পিআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট