চট্টগ্রাম শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪

সর্বশেষ:

হিমায়িত চিংড়ি ও অন্যান্য মাছ রপ্তানির উপর আরোপিত উৎসে কর ১% যুক্তিসঙ্গত নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

১০ জুন, ২০২২ | ১:১৪ অপরাহ্ণ

মো. আমিন উল্লাহ
সভাপতি, বাংলাদেশ ফ্রোজেন
ফুডস্ এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন

 

হিমায়িত চিংড়ি ও অন্যান্য মাছ রপ্তানির উপর আরোপিত উৎসে কর ১% যুক্তিসঙ্গত নয় বলে মনে করেন বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস্ এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশনের (বিএফএফইএ) সভাপতি মো. আমিন উল্লাহ। বিশেষ বিবেচনায় এ খাতের রপ্তানির উপর উৎসে কর শুন্য দশমিক ২৫ শতাংশ নির্ধারণ করার আহ্বান জানান তিনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এই প্রস্তাব করেন।
তিনি বলেন, হিমায়িত চিংড়ি ও অন্যান্য মাছ রপ্তানি খাতটি বিগত এক দশক যাবৎ বিভিন্ন আওতা বহির্ভ‚ত কারণে লোকসান দিয়ে রপ্তানি কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে ইউরোপসহ বিশ্বের অর্থনীতিতে মন্দা অবস্থা সৃষ্টি হওয়ায় বিশ্ব বাজারে চিংড়ির দাম প্রতি কেজিতে প্রায় ২ ডলার হ্রাস পেয়েছে। এছাড়াও কম মূল্যের ভেনামির সাথে আন্তর্জাতিক বাজারে চিংড়ি রপ্তানি কার্যক্রম ভালোভাবে চালিয়ে যেতে কষ্টকর হচ্ছে। তাই অন্যান্য কৃষি পণ্যের ন্যায় সরকার প্রদত্ত নগদ সহায়তা চিংড়িতে ১০% এবং অন্যান্য মাছে ৫% হতে বৃদ্ধি করে ২০%-এ উন্নীত করার জন্য অনুরোধ জানাই। পাশাপাশি বর্তমানে এ খাতের রপ্তানিতে নগদ সহায়তার উপর ১০% আয়কর কর্তন সম্পূর্ণরূপে রহিত করার অনুরোধ জানাই। মো. আমিন উল্লাহ বলেন, দেশের উন্নয়নে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে অধিক সম্পৃক্ত করার জন্য মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষিখাত, খাদ্য উৎপাদন ও ব্যবস্থাপনাসহ সামাজিক নিরাপত্তা, স্বাস্থ্যখাত, শিক্ষাখাত, মানবসম্পদ ও কর্মসংস্থানকে বাজেটে অধিক গুরুত্ব প্রদান করা হয়েছে। তাই এবারের বাজেট একটি বাস্তবসম্মত ও সময়োপযোগী বাজেট। বাজেটে পোশাক খাতের মতো সব রপ্তানি খাতের প্রতিষ্ঠানের কর্পোরেট কর হার ১২% করায় সরকারকে সাধুবাদ জানানো ছাড়া বিকল্প নেই।

পূর্বকোণ/এস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট