চট্টগ্রাম বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সর্বশেষ:

হাটাজারীতে জ্যাঠাকে বেঁধে পিটালো ভাতিজা

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ জুন, ২০১৯ | ১০:৫০ অপরাহ্ণ

তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে হাটহাজারী উপজেলার ধলই ইউনিয়নে মধ্যযুগীয় কায়দায় রশি দিয়ে বেঁধে ৬০ বছর বয়সী জ্যাঠাকে পিটুনি দিয়েছে তার আপন ভাইপো। আজ শুক্রবার (১৪ জুন) সকাল ৮টার দিকে ইউনিয়নের পশ্চিম ধলই হিম্মৎ চৌধুরী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। হতভাগ্য বৃদ্ধের নাম মো. হাসেম। গুরুতর আহত অবস্থায় হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে হাসেম তার গরুর জন্য বাড়ির পার্শ্ববর্তী জমি থেকে ঘাস কাটেন। এসময় তার আপন ছোটভাই কাশেমের গরু ওই ঘাস খেয়ে ফেলে। এ নিয়ে হাসেম গালমন্দ করলে তার ছোট ভাইয়ের পরিবারের সদস্যদের সাথে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয়। দুই পুত্র প্রবাসে ও অসুস্থ স্ত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় হাসেমকে একা পেয়ে এ ঘটনার জের ধরে গতকাল শুক্রবার সকালে কাসেমের পুত্র সাগর (২৩), সজীব(১৮) তার উপর হামলা চালায়। এসময় তারা হাসেমকে মাটিতে ফেলে গরুর রশি দিয়ে হাত-পা ও কোমর বেঁধে উপর্যুপরী কিল-ঘুষি ও লাথি দিতে থাকে।
স্থানীয়রা রক্তাক্ত ও সংজ্ঞাহীন অবস্থায় হাসেমকে উদ্ধার করে দ্রুত হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পরও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় পরে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
হাসেমের অপর ছোটভাই বাবু বলেন, একা পেয়ে আমার বড় ভাইকে অপর ভাইয়ের ছেলেরা রশি দিয়ে বেঁধে পিটুনি দিয়েছে। এ ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। বক্তব্য জানতে অভিযুক্ত ভাইপো সাগরের মুঠোফোনে গতরাতে ফোন দেয়া হলে তিনি পূর্বকোণের পরিচয় পেয়ে পরে কথা বলবেন বলে সংযোগ কেটে দেন।
হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মাহতাব জানান, সংজ্ঞাহীন ও রক্তাক্ত অবস্থায় হাসেম নামক এক বৃদ্ধকে আমাদের কাছে নিয়ে আসা হয়েছে। আমরা স্যালাইন পুস করে উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।
হাটহাজারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর গতকাল রাতে পূর্বকোণ অনলাইনকে বলেন এ ধরনের কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট