চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

৭ নভেম্বর, ২০২০ | ১:০৭ অপরাহ্ণ

আল-আমিন সিকদার 

পর্যটকদের মনে শীতের হাওয়া

ভ্রমণের মোক্ষম সময় বলা হয় শীতকালকে। শীতল বাতাস আর মিষ্টি রোদে দলে দলে ছুটতে দেখা যায় পর্যটকদের। কেউ ছুটে পাহাড়ে চড়তে, কেউবা ঝাপ দিতে যায় বিশাল জলরাশিতে। অলি-গলির পিকনিকতো আছেই। আর ছুটির দিন, সে তো বিনোদনকেন্দ্রর কাছে নিজেকে বিলিয়ে দিয়ে প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য উপভোগ করা।

তবে করোনার কারণে যে এবার ভ্রমণ পিপাসুরা নিজেদের চার দেয়ালের মাঝে গুটিয়ে নিয়েছে তা কিন্তু নয়। মুখে মাস্ক আর হাতে গ্লাভস লাগিয়ে ছুটেছেন বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে। তাইতো শীতের প্রথম ছুটির দিনটিতে নগরীর বিনোদন স্পটগুলো ছিল দর্শনার্থীদের দখলে। এদিকে করোনার লোকসান পুষিয়ে নিতে এবং দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করতে মাসব্যাপী নানান অফার দিচ্ছে বিনোদন স্পগুলো।

নগরীর সর্ববৃহৎ বিনোদন স্পট ফয়’স লেকে প্রবেশ মিলবে মাত্র ৩শ টাকায়। সাথে থাকছে ৭টি রাইড। পূর্বে প্রবেশ মূল্য ৩শ টাকা থাকলেও ছিল না রাইড সুবিধা। এছাড়াও সি-ওয়ার্ল্ডে প্রবেশ মূল্য ৬শ টাকা থেকে কমিয়ে আনা হয়েছে ৪শ টাকায়। সাথে থাকছে ‘অল রাইড আনলিমিটেড ইউজ’ সুবিধা। আর যদি ফয়’স লেকের রাতের দৃশ্য দেখতে চান তাহলে থাকছে বিনামূল্যে প্রবেশের সুবিধা। তবে এ সুবিধা গ্রহণে ক্রয় করতে হবে দুইশ টাকার ফুড কুপন। যা দিয়ে সমমূল্যের খাবার ক্রয় করতে পারবেন ফয়’স লেকের রেঁস্তোরাগুলো থেকে। শুধু তাই নয়, শীতকে সামনে রেখে দর্শনার্থীদের জন্য নতুন নতুন বিনোদনও সংযোজন করেছে ফয়’স লেক কর্তৃপক্ষ। চলতি মাসে এখানে যুক্ত করা হয়েছে ৯ডি ভিআর গেমস। আর এসকল অফার চলমান থাকবে পুরো অক্টোবর মাসজুড়ে। এতো সব অফার চলমান থাকায় দর্শনার্থীদের চাপ সামলাতে গতকাল বেশ হিমশিম খেয়েছে ফয়’স লেক। অন্যদিকে নগরীর অন্যসব বিনোদন স্পট যেমন শিশু পার্ক, যাদুঘর, ও চিড়িয়াখানাও ব্যস্ত সময় পার করছেন দর্শনার্থীদের নিয়ে। সরেজমিনে দেখা মিলে এই চিত্র।

গত দুই দিন ধরে শীতল বাতাস বইতে শুরু করেছে। এরইমধ্যে গতকাল শুক্রবার পড়েছে সাপ্তাহিক ছুটির দিন। ছুটির দিন উপভোগ করতে তাইতো প্রিয় মানুষগুলোকে নিয়ে বিনোদন কেন্দ্রে ভিড় জমিয়েছেন দর্শনার্থীরা। মিষ্টি রোদ হওয়ায় বিকেলের জন্য অপেক্ষা না করে দর্শনার্থীরা দুপুরেই যাত্রা শুরু করেছেন আনন্দ উপভোগের লক্ষ্যে। কেউ এসেছেন ফয়’স লেকে, কেউবা শিশুদের নিয়ে ছুটেছেন শিশু পার্ক-চিড়িয়াখানায় আবার কেউবা বন্ধু-বান্ধব নিয়ে দলছুট দিয়েছেন পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের পাড়ে। দিনভর ঘুরেছেন, খেলেছেন, ভিজেছেন সমুদ্রের ঢেউয়ে। আর তাদের নিরাপত্তায় যেমন দায়িত্বপালন করেছেন পুলিশ তেমনি বিনোদন কেন্দ্রগুলো ঘুরে ঘুরে পরিদর্শন করেছে র‌্যাবের টহল টিমের সদস্যরা।

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে বন্ধুদের নিয়ে বেড়াতে আসা কিশোর রিপন বলেন, ‘সিএন্ডবি কলোনির একটি কুলিং কর্নারে কর্মচারী হিসেবে কাজ করি। গত দুই মাসে কোন ছুটি কাটাইনি। বৃহস্পতিবার রাত থেকে একটু ঠাণ্ডা লাগছে। শুক্রবার সকালেও একই অবস্থা দেখে মালিককে বলে ছুটি নিয়ে ঘুরতে চলে আসছি। এসে দেখি প্রচুর মানুষ হয়েছে। শীতের মধ্যে ঘুরলে ভালোই লাগে। জার্নিটা বোঝা যায় না।’

এদিকে শীতে দর্শনার্থীর চাপ বাড়ায় একটু আশার আলো দেখছে পর্যটন ব্যবসায়ীরা। কনকর্ড ফয়’স লেকের উপ-ব্যবস্থাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ পূর্বকোণকে বলেন, ‘শীতকে সামনে রেখে মাসব্যাপী অফার চালু রেখেছি। রেখেছি ৩০ শতাংশ ডিসকাউন্টে রিসোর্টে থাকার সুবিধা। যেটা কোন শীতেই আমরা রাখতাম না। কারণ, শীতে সবচেয়ে বেশি পর্যটক হয় এখানে। আর এরইমধ্যে শীত শুরু হয়ে গেছে বলা চলে। একটু ঠাণ্ডা বাতাস পড়তেই দর্শনার্থীরা আসতে শুরু করেছেন। তাইতো এই শুক্রবার করোনাকালের মধ্যে সব থেকে বেশি পর্যটক এসেছেন। প্রায় দেড় হাজারের বেশি দর্শনার্থী পেয়েছি। আশা করছি এই করোনায় যে লোকসান আমরা গুনেছি তার কিছুটা ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবো এই শীতের মৌসুমে।’

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 224 People

সম্পর্কিত পোস্ট