চট্টগ্রাম রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩

সর্বশেষ:

১৮ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ

এম জাহেদ চৌধুরী, চকরিয়া

সাফারি পার্কে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে অতিথি পাখি

শীতের শুরু থেকেই অতিথি পাখির কলকাকলিতে মুখর চকরিয়ার ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের লেক এলাকা। লেকের স্বচ্ছ পানিতে শতশত অতিথি পাখির ওড়াউড়িতে মুগ্ধ হচ্ছে পার্কে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা।

প্রতি বছর নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসের দিকে হিমালয়ের উত্তরে অতি শীত নামতে শুরু করার ফলে উত্তরের শীত প্রধান অঞ্চল সাইবেরিয়া, মঙ্গোলিয়া, চীন, নেপাল, জিনজিয়াংসহ কয়েকটি দেশ থেকে অতিথি পাখিরা উষ্ণতার খোঁজে পাড়ি জমায় বিভিন্ন নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে। এ সময় দক্ষিণ এশিয়ার তুলনামূলক নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল বাংলাদেশেও লাখো অতিথি পাখির আগমন ঘটে।

বাংলাদেশের যেসব এলাকায় অতিথি পাখি আসে তার মধ্যে চকরিয়া উপজেলাও উল্লেখযোগ্য। চকরিয়ায় যেসব জায়গায় এসব পরিযায়ী পাখি আসে তম্মধ্যে ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক অন্যতম।

সাফারি পার্ক সূত্রে জানা যায়, প্রতিবছর নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসের দিকে প্রচুর অতিথি পাখির আগমন ঘটে সাফারি পার্কের লেকে। তারা সাধারণত বিশ্রাম নেয় লেকের পানিতে ভাসতে থাকা পদ্ম ফুলের উপর। এসব অতিথি পাখি মূলত হাঁস জাতীয় পাখি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দক্ষিণ আফ্রিকা অঞ্চল থেকে ছুটে আসা অতিথি পাখির মধ্যে আছে সরালি, পচার্ড, ফ্লাইফেচার, গার্গেনি, ছোট জিরিয়া, পান্তামুখী, পাতারি, মুরগ্যাধি, পাতারী হাঁস, জলকুক্কুট, খয়রা  ও কামপাখি। এছাড়া মানিকজোড়, কলাই, ছোট নগ, জলপিপি, নাকতা, খঞ্জনা, চিতাটুপি, বামুনিয়া হাঁস, লাল গুড়গুটি ও কাস্তেচাড়া প্রভৃতি পাখির দেখা মেলে মাঝে মধ্যে।

পার্কে ঘুরতে আসা দর্শনার্থী জুনাইদ আহমেদ অতিথি পাখির কলতানে মুগ্ধ হয়ে বলেন,  ‘পরিবার নিয়ে কক্সবাজার ঘুরতে এসেছি। এ সময়টাতে অতিথি পাখির আগমন হয় বলে জেনে পার্কে এসেছি। পার্কের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে হাতি, বানর, বাঘ-ভল্লুক, জেব্রা, বাঘ-সিংহসহ নানা প্রজাতির প্রাণী দেখেছি। লেকজুড়ে অতিথি পাখিদের উড়োউড়ি দেখে মুগ্ধ হচ্ছি।

সেইসাথে পাখিদের কলরব শুনতে দারুণ লাগছে।’ বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাজহারুল ইসলাম বলেন, অনুকূল পরিবেশ থাকায় পার্কের লেকগুলো অতিথি পাখিদের অভয়াশ্রম। তাই প্রতি বছরই পার্কের লেকে অতিথি পাখির আগমন ঘটে।

এবারও অতিথি পাখি এসেছে। এসব অতিথি পাখি পার্কের স্বচ্ছ লেকের পানিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা এসব অতিথি পাখির নিরাপত্তা তদারকি করা হয়। পার্কে আসা দর্শনার্থীদের উপর সতর্ক দৃষ্টি রাখা হয়, যাতে তারা ঢিল ছুড়ে বা অন্যভাবে পাখিদের বিরক্ত করতে না পারে।

 

পূর্বকোণ/ সাফা/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট