চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

৯ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১:৩৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, হোতা রুয়েলসহ গ্রেপ্তার ৩

টিকটকের মাধ্যমে পরিচয়ের সূত্রে চট্টগ্রামের ভুজপুর থেকে অপহৃত ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৭। এসময় অপরহণের অভিযোগে তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- সুনামগঞ্জের পাইকপাড়া গ্রামের ইব্রাহহীম আলীর ছেলে রুয়েল আহমেদ (২১), নেত্রকোনা জেলার মদন থানার কান্দাপাড়ার মো. শাহজাহানের ছেলে মো. অনিক (২০) ও সিলেট জেলার বিশ্বানাথ থানার বারুণী এলাকার মোকাদ্দেস মিয়ার ছেলে ইমন মিয়া (১৮)।

 

রবিবার (৮ জানুয়ারি) দুপুর পৌনে ২টায় পতেঙ্গার পূর্ব কাটগড় এলাকার ভাড়াঘর থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার। তিনি বলেন, ‘আট মাস আগে আসামি রুয়েল আহমেদের সাথে টিকটকের মাধ্যমে ওই ছাত্রীর পরিচয় হয়। সেই সূত্রে রুয়েল ওই শিক্ষার্থীকে মোবাইলে বিরক্ত ও প্রেমের প্রস্তাব দিতো। গত বছরের অক্টোবরে রুয়েল তার নিজ বাড়ি সুনামগঞ্জ থেকে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় তার বন্ধু অনিকের বাসায় চলে আসে, আর অনিয়মিতভাবে বিভিন্ন গার্মেন্টেসে চাকরি শুরু করে।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘গত ৪ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৯টায় ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়ার পথে ভুজপুরের হেয়াকো এলাকা থেকে রুয়েল তার দুই সহযোগীসহ ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে, ফুঁসলিয়ে জোরপূর্বক অপহরণ করে পতেঙ্গার পূর্ব কাটগড় এলাকায় অনিকের ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রী স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে না আসলে তার পরিবারের লোকজন খোঁজাখুজি করতে থাকি। সারাদিন খোঁজাখুজি করে কোথাও না পেয়ে ভিকটিমের বাবা ভুজপুরের দাঁতমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি জিডি করেন এবং র‌্যাবকে অবহিত করেন।’

 

নুরুল আবছার বলেন, ‘এ ঘটনায় র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি শুরু করে। এর ধারাবাহিকতায় গত ৮ জানুয়ারি দুপুর পৌনে ২টায় পতেঙ্গার পূর্ব কাটগড় এলাকার একটি ভাড়াঘর থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে। এসময় অপহরণের দায়ে রুয়েলসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা অপহরণের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। তাদের বিরুদ্ধে ভুজপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে সংশ্লিষ্ট থানায হস্তান্তর করা হয়েছে।’

পূর্বকোণ/পিআর/এসি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট