চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

১ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

জঙ্গল সলিমপুরে দখলদারদের পুনর্বাসন করা হবে

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জঙ্গল সলিমপুরে সরকারি ভূমি দখলে থাকা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে পুলিশ প্রশাসনের আবারো ধরপাকড় শুরু করা দরকার। এটার একটা প্ল্যান করতে হবে। সেখানে যাতে নতুনভাবে কোন স্থাপনা না হয়।

 

গতকাল শনিবার রাত আটটায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে অনুষ্ঠিত চট্টগ্রামের উন্নয়ন সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, জঙ্গল সলিমপুরে সরকারি ভূমি দখলে থাকা মানুষদের আশ্বস্ত করতে হবে, প্রকৃত ভূমিহীনদের পুনর্বাসন করা হবে। জায়গা বরাদ্দ-প্রত্যাশী সরকারি সংস্থাগুলোর অনুকূলে প্রাথমিক প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে।

 

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, জঙ্গল সলিমপুরে স্থাপিত চেক পোস্টকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। কোন ধরনের নির্মাণসামগ্রী যাতে না যায় সেই ব্যবস্থা নিতে হবে। সেখানে অবৈধভাবে যে সব ইউটিলিটিজ সার্ভিসগুলো আছে সেগুলো বন্ধ করে দিতে হবে। তাহলে অটোমেটিক ওখানে মানুষ থাকবে না।

 

তিনি বলেন, জঙ্গল সলিমপুরের নেতৃস্থানীয়দের ডেকে তাদের আশ্বস্ত করতে হবে যে, আমরা জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষকে জায়গা দিচ্ছি, তারা তোমাদের জন্য এখানে ফ্ল্যাট নির্মাণ করবে। স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য যেভাবে সরকার ফ্ল্যাট বরাদ্দ দেন সেভাবে তোমরাও পাবে। এটা বললে ওরা আশ্বস্ত হবে। এখন তারা টিনের চালা, কাঁচা ও আধাপাকা ঘরে আছে। সে যখন দেখবে যে সরকার নিলে আমিতো একটা পাকা বিল্ডিংয়ে থাকতে পারবো, আমার বেটার লাইফ হবে, তখন কিন্তু সে এটাতে সহযোগীতা করবে।

 

জেলা প্রশাসক আবুল বশর মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরী, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ কমশিনার কৃষ্ণপদ রায়, জেলা পুলিশ সুপার এস এম শফিউল আলম, সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস, স্থপতি মঞ্জুর কে এইচ উদ্দিন, সীতাকুণ্ড উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুন প্রমুখ।

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট