চট্টগ্রাম রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

২৯ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১০:১৪ অপরাহ্ণ

চকরিয়া-পেকুয়া সংবাদদাতা

আলীকদম সীমান্তে থামছে না গরু প্রবেশ-পাচার

মিয়ানমার থেকে আলীকদম সীমান্ত দিয়ে অবৈধ পন্থায় আসা গরু-মহিষ প্রবেশ থামছেই না। রাত গড়ালেই কয়েকটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট এসব গরু বিভিন্ন পাহাড়ি পথ দিয়ে চকরিয়ায় এনে বিক্রি করছেন খুচরা ও পাইকারি মূল্যে। এখান থেকে ক্রয় করা গরু বাজারজাত হচ্ছে চট্টগ্রাম, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। সম্প্রতি দৈনিক পূর্বকোণে ‘সীমান্তে ভোররাতের জন্য ‘অপেক্ষা’ গরু-মহিষের’ শিরোনামে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এরপরই নড়েচড়ে বসতে দেখা গেল প্রশাসনকে।

বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের মানিকপুরে অভিযান চালিয়ে পাঁচটি ট্রাকবোঝাই ২৫টি গরু জব্দ করেছে নাইক্ষ্যংছড়ি বিজিবি ১১ ব্যাটালিয়ন। এ সময় গরুসহ ট্রাকগুলো ফেলে ১০ জন পালিয়ে গেলেও আটক করা হয়েছে ৫ জন পাচারকারীকে। আটক ও পলাতক ১৫ জনকে আসামি করে চকরিয়া থানায় মামলা হয়েছে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- চকরিয়া পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডস্থ কোচপাড়ার আব্দুল গফুরের ছেলে মো. সোহেল (২১), সাহারবিল ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মাইজঘোনা গ্রামের মৃত শফর মল্লুকের ছেলে রেজাউল করিম (৩১), চকরিয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের রাজধানী পাড়ার বদিউল আলমের ছেলে ইউছুফ আলী (৩২), ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব নিজপানখালী গ্রামের আশেক আহমেদের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৬) ও সাহারবিল ইউনিয়নের মাইজঘোনার মৃত নুরুজ্জামানের ছেলে সাহাব উদ্দীন (৪২)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন চকরিয়া থানার অপারেশন অফিসার রাজিব সরকার। পূর্বকোণকে তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় নাইক্ষ্যংছড়ি বিজিবি ১১ ব্যাটালিয়ন। এ সময় পাঁচটি ট্রাকে করে ২৫টি গরু নিয়ে লামা থেকে চকরিয়ার প্রবেশ পথে পৌঁছলে গরুসহ ট্রাকগুলো জব্দ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে বিজিবি’র নায়েক সুবেদার ফরিদ উদ্দিন বাদী হয়ে চকরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় আটক ৫ জনসহ ১৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

পূর্বকোণ/জাহেদ/মামুন/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট