চট্টগ্রাম বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

২১ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

নাজিরহাট সংবাদদাদতা

চট্টগ্রামে ৬ সন্তানের জন্ম দিলেন গৃহবধূ

ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট বাজারের এক নার্সিং হোমে নরমাল ডেলিভারীর মাধ্যমে এক মা ৬ সন্তান প্রসব করেছেন।

মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নাজিরহাট বাজারের সেবা ক্লিনিক এন্ড নার্সিং হোমে ঘটনাটি ঘটে। জন্ম নেওয়া সন্তানগুলোর মধ্যে ৪ জন ছিলো ছেলে এবং ২ জন মেয়ে। তবে তারা কেউ বেঁচে নেই।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মায়ের গর্ভ থেকে সাড়ে পাঁচ মাসে সন্তান প্রসব হওয়াতে অর্থাৎ অপূর্ণ বয়সের কারণে বাচ্চা গুলো মারা যায়। তবে, জন্ম নেওয়ার পর দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত জীবিত ছিলো।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, নাজিরহাট পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড়ের বাসিন্দা মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম তার স্ত্রী তাসলিমা আকতারকে মঙ্গলবার সকালে উক্ত নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়। মূলত তাসলিমা আকতার সাড়ে পাঁচ মাসের গর্ববতি ছিলো, তার পেট অতিরিক্ত বড় হওয়ায় নিশ্বাস নিতে সমস্যা হতো।

চিকিৎসক ডা. ফাতেমা তুজ জোহরা জানান, পরীক্ষা-নিরীক্ষা পরবর্তী সন্ধ্যার দিকে নরমাল ডেলিভারীর মাধ্যমে বাচ্চাগুলোকে আলোর মূখ দেখান।

জানতে চাইলে ওই হাসপাতালের পরিচালক মুহাম্মদ দিদারুল আলম ও স্বপন কুমার দত্ত জানান, এই রোগী আমাদের নার্সিং হোমে আগেও চিকিৎসা সেবা নিয়েছে। রোগীর অবস্থা আমরা আগে থেকেই জানতাম। সর্বশেষ মা’কে বাচিয়ে বাচ্চাগুলোকে জন্ম নিতে পেরেছে সেটাই স্বার্থকতা।

নার্সিং হোমের চিকিৎসক ডা. ফাতেমা তুজ জোহরা জানান, ওই রোগী আমার চিকিৎসা সেবাতে ছিলো। ওর অবস্থা আমি আগে থেকেই জানতাম, রোগী আমার পর্যবেক্ষণের মধ্যে ছিলো। সর্বশেষ উনার পেট অতিরিক্ত বড় হয়ে জরায়ুর মূখ খোলে যাওয়াতে বাধ্য হয়ে প্রসব করাতে হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে দেখা গেছে পেটের ভেতর ছয়টি বাচ্চা আছে যার একটিরও পজিশন ভালো ছিলো না। আমি আমার পূর্বের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আল্লাহর নামে কাজ শুরু করি। আমি সফল হয়েছি, মা’কে বাঁচিয়ে বাচ্চাগুলোকে আলোর মূখ দেখাতে পেরেছি। বাচ্চা গুলো অপূর্ণ হওয়ার কারণে মারা গেছে। তবে জন্মের পর দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত বেঁচে ছিলো।

পূর্বকোণ/মুন্না/মামুন

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট