চট্টগ্রাম রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২

৩১ অক্টোবর, ২০২২ | ৯:৪০ অপরাহ্ণ

রামু সংবাদদাতা

রামুর বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্রে কঠিন চীবর দানোৎসব

কক্সবাজারের রামুর উত্তর মিঠাছড়ি বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্রে দানোত্তম শুভ কঠিন চীবর দানোৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ, একুশে পদকপ্রাপ্ত রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ প্রয়াত সত্যপ্রিয় মহাথের, উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বনবিহারের অধ্যক্ষ প্রয়াত প্রজ্ঞামিত্র মহাথের ও একই বিহারের সদ্যপ্রয়াত অধ্যক্ষ সারমিত্র মহাথেরো‘র পারলৌকিক শান্তি কামনায় এ মহতী পূণ্যদান অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার (৩১ অক্টোবর) দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত কঠিন চীবর দানের প্রধান দাতা ছিলেন কক্সবাজার পৌরসভার ঝিলংজা পূর্ব বড়ুয়া পাড়ার বাসিন্দা সংঘমাতা গীতা বড়ুয়া ও তাঁর সন্তান ফ্রান্স প্রবাসী প্রশান্ত বড়ুয়া এবং অসীম বড়ুয়া।

 

বৌদ্ধ ভিক্ষুরা ধর্মদেশনায় বলেছেন, দানের মাধ্যমে মানুষের নির্লোভ চরিত্র ও ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধা ফুটে উঠে। প্রত্যেক ধর্মেই দানকর্মকে শ্রেষ্ঠকর্ম হিসেবে উৎসাহিত করা হয়েছে। দানের মাধ্যমে মানবজাতির মঙ্গল সাধিত হয়। দানের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ দান হচ্ছে চীবরদান। চীবর দানের ফলে যেকোন দুর্ঘটনায় মৃত্যুর কবল থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, বিনাদোষে দণ্ডিত হয় না, অপমৃত্যু হয় না, অনাহারে মৃত্যু হয় না এবং দারিদ্রতা থেকে ধনী হওয়াসহ অসংখ্য মঙ্গল হয়।

অনুষ্ঠানে আশীর্বাদক ছিলেন রামু উত্তর মিঠাছড়ি বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্র ও একশ ফুট সিংহ শয্যা গৌতম বুদ্ধমুর্তির প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ করুণাশ্রী মহাথের।

 

দুই পর্বের ধর্মানুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ভারতীয় সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ ধর্মরত্ন মহাথের। এতে প্রধান অতিথির ধর্ম দেশনা করেন রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) শীলপ্রিয় মহাথের। প্রধান ধর্মদেশক ছিলেন রামু উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বনবিহারের অধ্যক্ষ ও উত্তর ফতেখাঁরকুল বিবেকারাম বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ শীলমিত্র থের, কক্সবাজার প্রজ্ঞালোক বৌদ্ধ বিহার ও ধ্যান কেন্দ্রের অধ্যক্ষ প্রজ্ঞাপাল থের। ধর্মদেশনা করেন রামু মৈত্রী বিহারের অধ্যক্ষ প্রজ্ঞাতিলক মহাথের, জ্যোতিঅগ্র মহাথের, চন্দ্রবোধি থের, করুণাপ্রিয় থের প্রমুখ ভিক্ষুসংঘ।

 

দানোৎসবে দিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে ছিল বিশ্বশান্তি কামনায় পবিত্র ত্রিপিটক থেকে সুত্রপাঠ, বুদ্ধপুজা, ভিক্ষুসংঘের প্রাতঃরাশ, জাতীয় ও ধর্মীয় পতাকা উত্তোলন, সংঘদান, অষ্টপরিস্কারদান, ধর্মসভা, অতিথি ভোজন, কঠিন চীবর ও কল্পতরু সহকারে গ্রাম প্রদক্ষিণ, দানোত্তম কঠিন চীবর দানসভা, চীবর পরিক্রমা, কঠিন চীবর ও কল্পতরু উৎসর্গ, উপ-সংঘরাজ, একুশে পদকপ্রাপ্ত রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ প্রয়াত সত্যপ্রিয় মহাথের, উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বনবিহারের অধ্যক্ষ প্রয়াত প্রজ্ঞামিত্র মহাথের ও একই বিহারের সদ্য প্রয়াত অধ্যক্ষ সারমিত্র মহাথেরো মহোদয়ের নির্বাণসুখ কামনা এবং বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল প্রাণির সুখ-শান্তি কামনায় সমবেত প্রার্থনা।

 

পূর্বকোণ/নিতিশ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট