চট্টগ্রাম শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

৩০ অক্টোবর, ২০২২ | ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

রামু সংবাদদাতা

রামুতে দু’ভাইকে এসিড নিক্ষেপ: পুলিশ সদস্যকে অভিযুক্ত করে মামলা

কক্সবাজারের রামুতে দুই ভাইকে এসিড নিক্ষেপের ৫দিন পর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) কর্মরত কনস্টেবল নিখিল বড়ুয়াকে মূল অভিযুক্ত করে রামু থানায় মামলা হয়েছে। এতে আরও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

শনিবার (২৯ অক্টোবর) রামু থানায় এসিড নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলাটি দায়ের করেন এসিডদগ্ধ টিপু বড়ুয়ার মা প্রকৃতা বড়ুয়া।

 

গত মঙ্গলবার রাতে চৌমুহনীতে টিপু বড়ুয়া তার মোটর সার্ভিসিংয়ের দোকান বন্ধ করে আরেক সহযোগী দিপক বড়ুয়াসহ দ্বীপ শ্রীকুল যাওয়ার পথে ভিক্টর প্লাজার সামনে গেলে একটি অটোরিক্সাযোগে পাঁচ-ছয় জন অজ্ঞাত লোক এসে মুহূর্তেই এসিড নিক্ষেপ করে দ্রুত পালিয়ে যায়। এর আগে গতমাসেও ওই দুই যুবকের ওপর ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটেছিল।

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ারুল হোসাইন জানিয়েছেন, শনিবার এ ঘটনায় দায়েরকৃত এজাহারটি মামলা হিসেবে রুজু করা হয়েছে। মামলার একমাত্র আসামি নিখিল বড়ুয়া। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

 

জানা গেছে, মূল অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য নিখিল বড়ুয়া এসিড হামলার শিকার টিপু বড়ুয়ার ভগ্নিপতি। তিনি রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের হাজারীকুল গ্রামের মৃত প্রদীপ বড়ুয়ার ছেলে। নিখিল বড়ুয়া বর্তমানে সিআইডি চট্টগ্রামের বিশেষ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত।

উল্লেখ্য, টিপু বড়ুযা (৩৪) ও দিপক বড়ুয়া (৩৩) নামের দুই ভাইকে এসিড নিক্ষেপের ঘটনার প্রতিবাদে এবং এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত পুলিশ সদস্য নিখিল বড়ুয়াসহ জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শনিবার (২৯ অক্টোবর) বিকালে রামু চৌমুহনী স্টেশনে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে রক্তারা এসিড সন্ত্রাসে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য নিখিল বড়ুয়া ও তার সহযোগীদের শাস্তির দাবি জানান।

 

পূর্বকোণ/নিতিশ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট