চট্টগ্রাম রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ৭:৩৮ পিএম

অনলাইন ডেস্ক

স্বামীর লেখাপড়ায় ব্যস্ততার কারণে বিচ্ছেদ চান নববধূ!

স্ত্রীকে ঠিকমতো সময় দিচ্ছেন না স্বামী। অথচ বিয়ে হয়েছে কয়েক মাস। সরকারি চাকরির আশায় প্রতিমাসেই কোনো না কোনো পরীক্ষা লেগেই থাকে তার। শেষ পর্যন্ত রাগে-অভিমানে বিয়ে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তই নিয়ে বসলেন নববধূ।সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সম্প্রতি এ ঘটনা রীতিমতো শোরগোল ফেলে দিয়েছে

নববধূর অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই স্বামী তাকে তিনি ঠিকমতো সময় দেননি। শুধু সরকারি চাকরির জন্য কোচিং নিয়ে ব্যস্ত থাকেন।

জোর করে হয়তো বিয়ে করানো হয়েছিল তার স্বামীকে। এজন্য পড়াশোনার বাহানা দেখিয়ে তার থেকে দূরে থাকছেন বলে ধারণা স্ত্রীর।

সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য অবশেষে এ দম্পতি হাজির হন স্থানীয় কাউন্সিলর নূরান্নিসা খানের কাছে। তিনি জানান, ডিস্ট্রিক্ট লিগ্যাল সার্ভিস অথরিটির সাহায্য নিয়ে দু’জনের কাউন্সেলিং শুরু করেছেন তিনি।

জানা যায়, ওই নারীর স্বামী পিএইচডি করেছেন। তারপরও সরকারি চাকরির জন্য মরিয়া তিনি। কাউন্সেলিংয়ের প্রথম পর্যায়ে চাকরি ও পড়াশোনা ছাড়া আর কোনোও কথা বলেননি এ ব্যক্তি। স্ত্রীর প্রতি কোনো দায়বদ্ধতাও নেই। নানা কারণে মানসিকভাবে বেশ বিপর্যস্ত তিনি। এ কারণে ওই নারী তার স্বামীকে ছেড়ে চলে যান। পরে তাকে বিয়ে বিচ্ছেদের মামলা নিষ্পত্তির জন্য বলা হয়।

তাদের দু’জনকেই মেডিটেশন করার জন্য বলা হয়েছে। তাদের ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটবে বলেও আশা করছেন কাউন্সিলর ।

পূর্কোণ/তাসফিয়া

The Post Viewed By: 230 People

সম্পর্কিত পোস্ট