চট্টগ্রাম বুধবার, ১৮ মে, ২০২২

১০ মে, ২০২২ | ১:১৫ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

প্লাস্টিকের বোতলে পানি পান বিষপানের সমান!

দৈনন্দিন জীবনে পানিপানের ক্ষেত্রে প্লাস্টিক বোতল হয়ে উঠেছে আমাদের নিত্যসঙ্গী। বাড়িতে গ্লাসে ঢেলে খাওয়া হলেও অফিসে কিংবা রাস্তায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা সম্ভব হয় না। কিন্তু এসব প্লাস্টিকের বোতল ব্যাকটেরিয়া ও রাসায়নিকে পূর্ণ থাকে। কেননা, বোতলগুলো তৈরি হয় পলিথিলিন টেরেফথ্যালেট (পেট) দিয়ে। উচ্চ তাপমাত্রায় এই বোতলের উপাদান পানিতে মিশে তা হয়ে ওঠে বিষাক্ত।

এমনকি পানি বিশুদ্ধ হলেও প্লাস্টিকের বোতলে রাখার কারণে তাতে নানা রকম ক্ষতিকর পদার্থ যোগ হয়, যা আমাদের শরীরের প্রবেশ করে। ফলে আমরা নানা অসুখে ভুগতে শুরু করি।

চলুন জেনে নেই প্লাস্টিকের বোতলে পানি পানের ক্ষতিকর দিকগুলো-

প্লাস্টিকের বোতল শুধু রাসায়নিকেই ভরা নয়, তারা ফ্লোরাইড, আর্সেনিক ও অ্যালুমিনিয়াম নির্গত করে, যা মানব শরীরের জন্য বিষাক্ত। গরমে যখন প্রকৃতির তাপমাত্রা বাড়ে তখন স্বাভাবিকভাবে প্লাস্টিকের বোতলে থাকা পানিও গরম হয়ে যায়। এতে প্লাস্টিকের নানা উপাদান বোতলে থাকা পানিতে মিশে যায়। তাপমাত্রা বেড়ে গেলে ক্ষতিকারক উপাদানগুলোও অনেক বেশি মিশতে থাকে। আর সেই পানি পান করলে তা শরীরের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়ায়।

প্লাস্টিকের বোতল ব্যবহার স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায়। প্লাস্টিকে রয়েছে বাইফেনিল জাতীয় রাসায়নিক, যা ডায়াবেটিস ও উর্বরতায় সমস্যা সৃষ্টিকারী। এছাড়া প্লাস্টিকের বোতল একাধিকবার ব্যবহারের ফলে স্থুলতা, ডায়াবেটিস এমনকি ক্যান্সারের মতো ভয়ঙ্কর রোগও হতে পারে।

প্লাস্টিকের বোতলে থাকে থ্যালেট নামক একটি ক্ষতিকর উপাদান। প্লাস্টিকের বোতলে পানি রাখলে তা পানির সঙ্গে মেশে। এই ক্ষতিকর উপাদান বাড়িয়ে দেয় লিভার ক্যান্সারের ঝুঁকি। সেইসঙ্গে এটি পুরুষের বন্ধ্যাত্বেরও কারণ হতে পারে।

পূর্বকোণ/এস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট