চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

সর্বশেষ:

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ | ৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

আজ প্রথম টি-টোয়েন্টি পাকিস্তানে প্রথম জয়ের খোঁজে বাংলাদেশ

অনেক প্রশ্ন, অনেক যদি কিন্তু, সব কিছুরই অবসান ঘটেছে, টাইগাররা এখন পাকিস্তানে। প্রস্তুত হচ্ছে পাকিস্তানের মাটিতেই আজ প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মাঠে নামার। বিকাল ৩টায় ৩ ম্যাচের ধুম-ধাড়াক্কা সিরিজের আজ প্রথমটিতে মাঠে নামবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। বিটিভি, জিটিভি ও মাছরাঙার সাথে টেন ক্রিকেট ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।
ব্যক্তিগত কারণে দলে নেই টাইগারদের সেরা ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। আর পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের সেরা পারফর্মার সাকিব আল হাসান নেই নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে। তবে থেমে থাকছে না ক্রিকেট। অতীতের পরিসংখ্যান বাংলাদেশের পক্ষে না থাকলেও আশা দেখেছেন টাইগাররা। পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টির পরিসংখ্যান খুব বেশি সুখকর নয়। দু’দলের মধ্যকার ১০ টি-টোয়েন্টির মধ্যে বাংলাদেশের জয় এসেছে কেবল ২টি ম্যাচ, যার বিপরীতে টাইগারদের হারতে হয়েছে ৮টি ম্যাচে। তবে সব থেকে বড় আক্ষেপ বিদেশের মাটিতে এখনো পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় পায়নি বাংলাদেশ। দেশের মাটিতেই এসেছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই জয়। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট শুরু হওয়ার পর পাকিস্তানকে হারাতে বাংলাদেশকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ৮ বছর। অর্থাৎ ২০০৭ সালে প্রথমবার দুই দল মুখোমুখি হয়, এরপর কেটে যায় আট বছর আর সাতটি ম্যাচও। বাংলাদেশ তবুও জয়ের দেখা পাচ্ছিল না পাকিস্তানের বিপক্ষে। সেই আক্ষেপ কেটেছে ২০১৫ সালে। বল হাতে মুস্তাফিজুর রহমানের তোপ আর ব্যাট হাতে সাকিব আল হাসান ও সাব্বির রহমানের দারুণ পারফরম্যান্সে পাকিস্তানকে প্রথমবারের মতো হারায় বাংলাদেশ। এরপর আরো দু’টি ম্যাচে একে অপরের মুখোমুখি হয় দুই দল। যার মধ্যে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে একটিতে আর হেরেছে একটিতে। বাংলাদেশের হয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে সেরা পারফর্মার সাকিব আল হাসান। ব্যাট কিংবা বল দুইয়েই সেরা সাকিব। দু’দলের ব্যাটসম্যানদের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক সাকিব আল হাসান। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৯টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। আর ৪১ দশমিক ৯১ ব্যাটিং গড়ে সাকিবের রান সংখ্যা ২৯২ রান। যেখানে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৮৪ রানের ইনিংসটি এসেছিল পাল্লেকেলে থেকে, সেই সঙ্গে আছে ৩টি অর্ধশতকও। আর তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজ। টাইগারদের বিপক্ষে ৮ ম্যাচে ১৯৩ রান করেছেন তিনি। পাকিস্তান সফরে বাংলাদেশের স্কোয়াডের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ রান আছে তামিম ইকবালের ঝুলিতে। ৯ ম্যাচে ১৩১ রান সংগ্রহ করেছেন তিনি, যেখানে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ২৪। বল হাতে বাংলাদেশের হয়ে সেরা পারফর্মার আব্দুর রাজ্জাক। টাইগারদের হয়ে সাত ম্যাচের সাত ইনিংসে বল হাতে ৭ ইকোনমি রেটে নিয়েছেন সাতটি উইকেট। আর পাকিস্তানের হয়ে ১০ ম্যাচে ১০টি উইকেট নিয়েছেন শহীদ আফ্রিদি। বাংলাদেশের হয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সবকটি খেলেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এবারের টাইগারদের অধিনায়কত্বের ভারও পড়েছে তাঁর কাঁধেই। আর বর্তমান স্কোয়াডের মধ্যে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং তামিম ইকবালের।

The Post Viewed By: 32 People

সম্পর্কিত পোস্ট