চট্টগ্রাম রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

১৭ মে, ২০১৯ | ২:৩১ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

জন্ম-ই তাঁর ক্রিকেটার হওয়ার জন্য

বিশ্ব জয়ের স্বপ্ন নিয়ে কদিন পরেই ইংল্যান্ডে শুর” হচ্ছে দশ দলের বিশ্বকাপ। এবারের আসরে বাংলাদেশকে বলা হচ্ছে সবচেয়ে অভিজ্ঞ দলগুলোর একটি। তবে ১৫ সদস্যের দলের সাত ক্রিকেটারের এবারই হতে যাচ্ছে প্রথম বিশ্বকাপ অভিজ্ঞতা। এদের মধ্যে একজন মেহেদী হাসান মিরাজ। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সঙ্গে দার”ণ জুটি মিলিয়ে স্পিনে বাংলাদেশ দলের অন্যতম নির্ভরতা তিনি। বিশ্বকাপে তর”ণ এ তুর্কির ওপর বিশেষ নজর থাকবে টাইগার ভক্তদের। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মিরাজের আগমনটা ধূমকেতুর মতোই। ‘এলেন, দেখলেন, জয় করলেন’, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে তার অভিষেক সিরিজটা ছিল অনেকটা এরকমই। ২০১৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে রাজকীয় অভিষেক হয় তার। দুই টেস্টে ১৯ উইকেট নিয়ে ভেঙেছিলেন ১২৯ বছরের রেকর্ড। ২০১৭ সালের মার্চে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ওয়ানডে অভিষেক হয় ডানহাতি অফস্পিনারের। অভিজ্ঞতার ঝুলিটা খুব বড় না হলেও ২৭ ওয়ানডেতে ২৮ উইকেট নিয়ে আগামী সম্ভাবনার কথা জানান দিচ্ছেন তিনি। সময়ের পরিক্রমায় বাংলাদেশ দলের এক নম্বর অফস্পিনার বনে যাওয়া মিরাজের জন্য এবারই প্রথম বিশ্বকাপ অভিজ্ঞতা। বিশ্বসেরা এ আসর নিয়ে কিছুটা রোমাঞ্চিত থাকলেও বিশ্বকাপের জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপ শুর”র আগে আয়ারল্যান্ডে মিরাজ ও সাকিব স্পিন জুটি বেশ নজর কেড়েছে।
অনূর্ধ্ব-১৯ দল থেকে উঠে আসা দার”ণ মেধাবী এই ক্রিকেটার মূলত মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করেন। কিন্তু, জাতীয় দলে ব্যাটিং কম্বিনেশনে তাকে ব্যাট করতে হয় লোয়ার অর্ডারে। তবে, এশিয়া কাপে যখন টপ অর্ডাররা টানা ব্যর্থ হয়েছিলো। তখন টিম ম্যানেজমেন্ট মিরাজকে ওপেনিংয়ে বাজিয়ে দেখেছিল। সেখানেও সাহসিকতা দেখিয়েছেন মিরাজ। তবে, বাস্তবতা হলো। বিশ্বকাপের মঞ্চে ব্যাটিংয়ের থেকে বোলিংয়ে মিরাজকে রাখতে হবে অবদান। বিশেষ করে পাওয়ার প্লে’তে। ২০১৬ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন সেমিফাইনালের মঞ্চে। উত্তেজনাপূর্ণ সেমিফাইনালে তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৩ উইকেটে পরাজিত হয়। তৃতীয় প্লে-অফে শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলকে পরাজিত করে তৃতীয় স্থান অধিকার করে মিরাজের দল। অসাধারণ অলরাউন্ড নৈপুণ্যে প্রদর্শনের সুবাদে মিরাজ ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবার জাতীয় দলের হয়ে মিরাজের স্বপ্নের পরিধি বহুগুণ। আয়ারল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্নের কথা জানিয়েছেন তিনি। ব্যাটিং ও বোলিংয়ে দার”ণ সক্ষমতা থাকায় ভবিষ্যতের সাকিব আল হাসান বলা হয় তাকে। দলের সেরা অলরাউন্ডার হওয়ার জেদ তার ভেতরেও রয়েছে। বয়সভিত্তিক দলে নিজের কারিশমা দেখিয়েছেন। এবার বড়দের মঞ্চে নিজেকে মেলে ধরার পালা।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট