চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৮ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:০১ পূর্বাহ্ন

স্পোর্টস ডেস্ক

থার্ড আম্পয়ারের ‘নটআউট’-‘আউট’ খেলা !

দু’বার জীবন পেয়েও ইনিংস লম্বা করতে ব্যর্থ লিটন

রাজাকোটে সিরিজ জয়ের লক্ষ্য নিয়ে গতকাল টস হেরে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। ওপেনার নাঈম শেখ এবং লিটন দাস ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন। দু’জনে যোগ করেন ৬০ রান। এরপর লিটন দাস নিজের ভুলে রান আউট হয়ে ফিরে যান। খেলেন ২১ বলে ২৯ রানের ইনিংস।

আউট হওয়ার আগে দু’বার জীবন পান লিটন দাস। ইনিংসের ৫.৩ ওভারে যুজবেন্দ্র চাহালের বলে ডাউট দ্য উইকেটে এসে খেলেন। কিন্তু ব্যাটে-বল

সংযোগ হয়নি। উইকেটরক্ষক ঋষভ পান্তের গ্লাভসে চলে যায় বল। তিনি স্টাম্পিংও করেন। কিন্তু স্টাম্পের আগে বল ধরায় নো বল হয়ে যায়। স্টাম্পিং হতে বেঁচে যান লিটন। সঙ্গে পান ফ্রি হিট। পরের ওভারে আবার জীবন পান লিটন দাস। ওয়াশিংটন সুন্দরকে স্লগ সুইপ করতে যান তিনি। বল উঠে যায় উপরে। শিভাম দুবে, ঋষভ পান্ত এবং রোহিম শর্মার মাঝে যায় বল। ভারতীয় অধিনায়ক ক্যাচ ধরার জন্য লাফিয়ে পড়েন। বল হাতে পড়লেও তালুবন্দি করতে পারেনি তিনি। দুই জীবন পাওয়া লিটন সেটা ঠিক কাজে লাগাতে পারেননি। পরের ওভারের ঠিক দ্বিতীয় বলে চাহালের ওভারে রান আউট হয়ে ফেরেন তিনি। বল ছিল ক্রিজের ওপরই। লিটন বল না দেখেই রান নিতে যান। কিন্তু নন স্ট্রাইক থেকে সাড়া না পেয়ে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করলেও পারেননি। ঋষভ পান্তের থ্রোতে এবার সত্যিই ফিরতে হয় লিটন দাসকে।

ম্যাচের বাংলাদেশ ইনিংসে ঘটনা ঘটে আরও। এবার মঞ্চে তৃতীয় আম্পায়ার। ভুল শুধু ব্যাটসম্যান বা বোলারেরই হয় না। আম্পায়ারের হয়। তার চেয়েও অবাক করার ব্যাপার হয়ে যায়, যখন দেখা যায়, ম্যাচের তৃতীয় আম্পায়ার দৃষ্টিকটু ভুল করছেন। তৃতীয় আম্পায়ারের কথা আলাদা করে বলার কারণ, ওই আম্পায়ারের কাছে প্রযুক্তি থাকে। বারবার দেখার সুযোগ থাকে। তারপরও কি তিনি ভুল করতে পারেন? একটু অস্বাভাবিকই। এমনই অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটলো সৌম্য সরকারের আউটে। ম্যাচে দ্বিতীয়বারের মতো বাচ্চাসুলভ ভুল করেছিলেন রিশাভ পান্ত। ইনিংসের ১৩তম ওভারের শেষ বলটি করেছিলেন ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল। ওই বলে ডাউন দ্য উইকেটে এগিয়ে যাওয়া সৌম্যকে স্ট্যাম্পিং করলেন পান্ত, কিন্তু আবারও দেখা গেল হাতটা যেন তার স্ট্যাম্পেরই আগে। রিপ্লেতে তেমনটা দেখা যাওয়ার পর রাজকোটের সৌরাষ্ট্র স্টেডিয়ামের জায়ান্ট স্ক্রিনেও ভেসে উঠলো-নট আউট। বাংলাদেশের সমর্থকরা তখন হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন। কিন্তু ওই স্বস্তি ছিল কয়েক সেকেন্ডের। পরক্ষণেই আবার ‘আউট’ ভেসে ওঠে জায়ান্ট স্ক্রিনে। বাউন্ডারির কাছ থেকে সৌম্য ফিরে আসতে চাইলেও আবার তাকে ড্রেসিংরুম দেখিয়ে দেন আম্পায়ার। ২০ বলে ৩০ রান করে সাজঘরেই ফিরতে হয় সৌম্যকে।

The Post Viewed By: 35 People

সম্পর্কিত পোস্ট