চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২২ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:১৭ পূর্বাহ্ণ

ইনিংস পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে প্রোটিয়ারা

দুঃসময় কাটছে না দক্ষিণ আফ্রিকার। রাঁচি টেস্টের প্রথম ইনিংসে ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও একই পরিণতি। ইনিংস ব্যবধানে হারের সঙ্গে হোয়াইটওয়াশের শঙ্কা চোখ রাঙাচ্ছে সফরকারীদের। গতকাল প্রোটিয়াদের হার একরকম নিশ্চিত হয়েই গেছে। বাকি আছে কেবল আনুষ্ঠানিকতার। রাঁচি টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ৮ উইকেটে ১৩২।

ফলোঅনে পড়ে এখনও ভারতের চেয়ে তারা পিছিয়ে আছে ২০৩ রানে। ২ উইকেট হাতে রেখে সামনের দুই দিন ব্যাট করে ম্যাচে ফেরা, অলৌকিক কিছুই করতে হবে সফরকারীদের। ভারতের জয়টা তাই সময়ের অপেক্ষা। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট জিতে ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার আনন্দে মাতার সব আয়োজনই প্রস্তুত। চাই তাদের ২ উইকেট, তাহলেই তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ আগেই ২-০ তে জিতে নেওয়া ভারত হোয়াইটওয়াশ করবে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। রোহিত শর্মার ডাবল সেঞ্চুরি ও আজিঙ্কা রাহানের শতকে ৯ উইকেটে ৪৯৭ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছিল ভারত। জবাবে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৬২ রানে অলআউট হয়ে ফলোঅনে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। দ্বিতীয় ইনিংসেও ভারতীয় বোলারদের সামনে খেই হারিয়েছে তারা। আরও একবার ব্যর্থ প্রোটিয়াদের টপ অর্ডার। মাত্র ৩৬ রানে ৫ উইকেট হারায় তারা। কিছুই করতে পারেননি কুইন্টন ডিক (৫), জুয়ায়ের হামজা (০), ফাফ ডু প্লেসিস (৪) ও টেম্বা বাভুমা (০)। এই বিপদের মধ্যেই মাথায় আঘাত পেয়ে ১৬ রান করে মাঠ ছাড়েন এলগার। প্রোটিয়াদের বিপদ আরও বাড়ে ৫ রান করে হেনরিখ ক্লাসেন আউট হলে। জর্জ লিন্ডে (২৭) ও ড্যান পিয়েডট (২৩) চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হয়েছেন। এলগারের মাথায় বলের আঘাত লাগায় ‘কনকাশন-সাব’ হয়ে মাঠে নামেন থিউনিস ডি ব্রুইন। টপ অর্ডার এই ব্যাটসম্যান লোয়ার অর্ডানে নেমে তৃতীয় দিনের শেষ বিকেলে প্রতিরোধ গড়েছেন।

The Post Viewed By: 53 People

সম্পর্কিত পোস্ট