চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:০২ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

চট্টগ্রাম ও ঢাকা মেট্রো ম্যাচ ড্র

জাতীয় লিগে বরিশালের দারুন জয়

জাতীয় লিগে বৃষ্টির কারণে সবার পরে শুরু হয়েছিল বরিশাল ও সিলেটের মধ্যকার ম্যাচটি। তবে নিষ্পত্তি হলো সবার আগে। গতকাল শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে সিলেট বিভাগকে ইনিংস ও ১৩ রানে হারিয়েছে বরিশাল বিভাগ। তবে ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের ম্যাচে ফল আসেনি। অন্যদিকে চট্টগ্রাম ও ঢাকা মেট্রোর দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচটিও ড্র হয়েছে।

সিলেট-বরিশাল : রাজশাহীতে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে তৃতীয় দিনে বরিশাল পেসার রাব্বির তোপে প্রথম ইনিংসে সিলেট গুটিয়ে গিয়েছিল মাত্র ৮৬ রানে। বৃষ্টিতে প্রথম দুদিনের অনেকটা খেলা ভেস্তে যাওয়ায় পরে ব্যাট করতে নেমে দ্রুত রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে বরিশাল বিভাগ। ৫০.৩ ওভারে ৮ উইকেটে ২৩১ তুলে ইনিংস ছাড়েন অধিনায়ক ফজলে মাহমুদ। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে সিলেট দুই উইকেট হারায় তৃতীয় দিনেই। গতকাল রোববার শেষদিনে তাদের ১৩২ রানে গুটিয়ে জয় তোলে বরিশাল।

ঢাকা-রাজশাহী : ফতুল্লায় প্রথম স্তরের ম্যাচটিতে প্রথম ইনিংসে ২৪০ তুলে অলআউট হয়েছিল ঢাকা বিভাগ। জবাব দিতে নেমে রাজশাহী বিভাগ প্রথম ইনিংসে তোলে ১৯৭ রান। পরে ঢাকা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে যায় ২৫৪ রানে। আর শেষদিনে রাজশাহী ৫ উইকেটে ১০৬ তোলার পর ম্যাচ ড্রর মুখ দেখে।

চট্টগ্রাম – ঢাকা মেট্রো : চট্টগ্রাম ও ঢাকা মেট্রোর দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচটি ড্র হয়েছে। ৭ উইকেটে ৩৪৯ রানে দিন শুরু করে ৫ রানের ব্যবধানে চট্টগ্রামের শেষ ৩ ব্যাটসম্যান মাঠ ছাড়েন। শহীদুল ইসলামকে (৮৩) ফিরিয়ে ১৫১ রানের শক্ত জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান। ঢাকা মেট্রোর প্রথম ইনিংস ৩৫৪ রানে গুটিয়ে গেলে দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে নামে চট্টগ্রাম। পিনাক ঘোষ ও তামিম ইকবালের ১০২ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন মাহমুদউল্লাহ। পিনাককে (৫৭) ফেরানোর পর ঢাকা মেট্রোর এই অলরাউন্ডার পরের বলে মুমিনুল হককে আউট করে শূন্য রানে। মাহমুদউল্লাহ তার পরের ওভারে টানা দ্বিতীয় ইনিংসে তামিমকে শিকার করেন। ৪৬ রান করেন বাঁহাতি ওপেনার। এরপর তাসামুল হক ও মাসুম খানের ফিফটিতে ৫ উইকেটে ২২৭ রান করে চট্টগ্রাম। তাসামুল ৫৩ রান করেন, ৬১ রানে অপরাজিত ছিলেন মাসুম।

The Post Viewed By: 49 People

সম্পর্কিত পোস্ট