চট্টগ্রাম সোমবার, ০১ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:০৬ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফর

সরকারের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় বিসিবি

ভবিষ্যৎ সফর সূচি (এফটিপি) অনুযায়ী আগামী বছরের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তান সফরের কথা রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের। এই সফরে রয়েছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুটি টেস্ট ম্যাচ ও ৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। এখন পর্যন্ত সবই ঠিক আছে তবে ভাবনায় পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সম্প্রতি পাকিস্তান সফরে গিয়ে ৩টি ওয়ানডে ও ৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে শ্রীলংকা। ২০০৯ সালে পাকিস্তানে শ্রীলংকা দলের বাসে সন্ত্রাসী হামলার পর দীর্ঘ নয় বছর ধরে আন্তর্জাতিক সিরিজ নিয়ে চলা খরায় সেই শ্রীলংকাই জল ঢেলেছে বলা যায়। গত নয় বছরে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে অনেক ভাবে চেষ্টা করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তাতে অবশ্য একেবারে ব্যর্থও হয়নি পিসিব। ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবুয়ে আর বিশ্ব-একাদশের বিপক্ষে ম্যাচ খেলেছিল পাকিস্তান জাতীয় দল। কিন্ত এত কিছুর পরও শঙ্কা থেকেই যায় নিরাপত্তা নিয়ে। সেটাই ভাবাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে। যদিও এর আগে নারী ক্রিকেট দল সিরিজ খেলেছিল পাকিস্তানে গিয়ে। সামনে জাতীয় দলের পাশাপাশি নারী দলেরও সিরিজ রয়েছে পাকিস্তানে। গতকাল বিসিবিতে বাংলাদেশ দলের ভবিষ্যৎ সফর নিয়ে কথা বলে ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান। তার মতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও তাকিয়ে আছে সরকারী সংস্থার নিরাপত্তা রিপোর্টের উপর। ‘আমাদের সিইও (বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী) এখন বাইরে আছেন। আর এটা নিয়ে আগেও কথা বলেছি। সরকারের সংস্থা থেকে নিরাপত্তা দল যাবে পাকিস্তানে, উনাদের রিপোর্টের উপর আমরা কাজটা করবো।

আগামী ডিসেম্বরে শুরু হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) এর সপ্তম আসর। এর জন্য পাকিস্তান সফরের সূচিতে পরিবর্তন আসবে কী না এমন প্রশ্নে আকরাম খান বলেন, আমাদের শিডিউল তো করা আছে। বিপিএল কখন করবো এটা কিন্তু আমাদের আগেই সিদ্ধান্ত নেওয়া। তারপর আমাদের পাকিস্তান সফর আছে সেটাও ফিক্সড করা আছে। এখানে তারিখের কোনও পরিবর্তন হচ্ছেনা।

নারী দল ও বয়স ভিত্তিক দলও পাকিস্তান সফর করবে। এই সফরগুলোর নিরাপত্তার বিষয়ে কতটা ভাবছে বিসিবি এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এটা আলাদা বিষয়। মেয়েদের ও বয়সভিত্তিক যে দলটা যাবে তাদের উন্নতিটা খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সাথে নিরাপত্তাটাও আছে। তবে জাতীয় দলের বিষয়টা সম্পূর্ণ ভিন্ন।

সেখানে কিন্তু নিরাপত্তা ব্যবস্থা বেশি থাকে। সবার দৃষ্টিটাও ওখানে থাকে। একটা জিনিস বার বার বলছি আমাদের মূল দলের সফরের ক্ষেত্রে কিন্তু সরকারের অনুমতিও লাগবে। সে জিনিসটার জন্য কিন্তু আমাদের অপেক্ষা করতে হবে। সেখান থেকে সবুজ সংকেত পেলেই আমরা এটা নিয়ে কাজ করবো।

শেয়ার করুন
  • 1
    Share
The Post Viewed By: 229 People

সম্পর্কিত পোস্ট