চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১১ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:৩০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক

মেসিকে ছাড়া আর্জেন্টিনাকে চায় না বাংলাদেশ

দেশের ফুটবল পাড়ায় কত খবরের ভিড়ে একটা খবর বেশ চাউর হয়েছে। লিওনেল মেসি আসছেন বাংলাদেশে। এ নিয়ে রীতিমত টুইট করে ঝড়ই তুলে দিয়েছে প্যারাগুয়ে। আর্জেন্টিনা-প্যারাগুয়ে ম্যাচ নিয়ে ক্লাব পাড়াও বেশ সরগরম। এর আগেও বেশ কয়েকবার এমন উদ্যোগ নেয়া হলেও কার্যত কোনও ম্যাচেরই দৃশ্যমান অগ্রগতি দেখা যায়নি। এবারও সমর্থকদের মধ্যে শঙ্কা মেসিরা আসবে তো বাংলাদেশে! জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে চলতি বছরের নভেম্বর মাসে একটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ খেলতে ঢাকায় আসছে আর্জেন্টিনা ও প্যারাগুয়ে দল। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে এ ম্যাচ খেলতে পারেন ফুটবল যাদুকর লিওনেল মেসি। তবে এই ম্যাচের সবচেয়ে বড় বাধার নাম ‘শর্ত’। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী জানান, ‘দুই দলের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দুই দলকে আমরা আনার চেষ্টা করছি। কিছু শর্ত সাপেক্ষে তাদের ম্যাচটা হবে। নিরাপত্তা-আর্থিকসহ কিছু শর্ত পূরণ হলেই তাদের ম্যাচটা হবে।’ এই ধরনের ম্যাচের আয়োজনে নানান শর্ত থাকে। অংশগ্রহণকারী দল, আয়োজক দেশ ও এজেন্টদের শর্ত থাকে অনেক বিষয় নিয়ে। এবার অংশগ্রহণকারী দলগুলোর প্রধান শর্তগুলোর একটি হলো নিরাপত্তা। সেটার নিশ্চয়তা দিয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। তবে বাফুফে ও মন্ত্রণালয়ের একটাই শর্ত- এ ম্যাচে লিওনেল মেসির খেলা নিশ্চিত করতে হবে।’ আগামী দুয়েকদিনের মধ্যে সব বিষয় নিয়ে এজেন্ট, অংশগ্রহণকারী দল ও আয়োজক দল আলোচনায় বসবে। সেখানেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে। আপাতত মেসিকে ছাড়া কোনও ম্যাচ ঢাকায় করতে রাজী নয় সরকার ও বাফুফে। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল সরাসরি বলে দিয়েছেন, ‘যে প্রতিষ্ঠান ঢাকায় এই ম্যাচ আয়োজন করবে তারা আমাদের কাছে অনুমতি ও নিরাপত্তার নিশ্চয়তার বিষয়ে একটি চিঠি চেয়েছিল। আমরা দিয়েছি। সেখানে বলেছি, আর্জেন্টিনা দলে মেসি থাকতে হবে। আসতে হবে আর্জেন্টিনার পূর্ণাঙ্গ দল। কারণ, অপূর্ণাঙ্গ আর্জেন্টিনা দল আনার মানেই হয় না।’ ২০১১ সালেও আর্জেন্টিনা দল এসেছিল ঢাকায়। নাইজেরিয়ার সঙ্গে একটা ম্যাচও খেলেছে তারা। এই ম্যাচটি আয়োজন করতে আনুমানিক ৩০ কোটি টাকা খরচ হয়েছিল আয়োজকদের। এবার খরচ বেড়ে যাচ্ছে বলে সূত্র জানায়। খরচ আনুমানিক ৪০ কোটির উপরে হতে পারে। তাই মেসিকে ছাড়া কোনভাবে এই ম্যাচ মাঠে গড়াচ্ছে না ঢাকায়। চলতি মাসে জার্মানি ও ইকুয়েডরের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ খেলবে আর্জেন্টিনা। নিষেধাজ্ঞার কারণে এই দুই ম্যাচে খেলতে পারবেন না মেসি। আগামী মাসে নভেম্বরে এশিয়া সফরে আসার কথা আলবেসিলেস্তেদের। ১৫ নভেম্বর ব্রাজিলের সঙ্গে ম্যাচ হওয়ার কথা সৌদি আরবে। ১৮ নভেম্বর ঢাকায় প্যারাগুয়ের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা আর্জেন্টিনার।

সে ম্যাচে তিন মাস নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে ফেরার কথা মেসিরও। যদি শর্ত পূরণ হয় তাহলে দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশে খেলতে আসবে মেসির দল। এর আগে ২০১১ সালে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে একটি প্রীতি খেলেছিলো মেসিরা। সেই ম্যাচ ৩-১ ব্যবধানে জিতেছিলো আলবেসিলেস্তেরা। ম্যাচটি যদি হতেই হয় সেক্ষেত্রে মেসিকে নিশ্চিত করতে হবে আর্জেন্টিনা ও এজেন্টদের।

The Post Viewed By: 144 People

সম্পর্কিত পোস্ট