চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

রণকৌশল সাজাতে ব্যস্ত কোচ জেমি ডে

কাতারের বিরুদ্ধে নিজেদের উজাড় করে দিতে চান জামাল ভূঁইয়ারা

ভুটানকে হারিয়ে প্রাথমিক প্রস্তুতিটা চাঙা করেছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কাতার ম্যাচটা অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল ১০ অক্টোবর। ভুটান বধের আত্মবিশ্বাস নিয়ে কাতার ম্যাচের প্রস্তুতি আগেই শুরু করেছে জামাল ভূঁইয়ারা। লক্ষ্যটা পরিষ্কার। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে কাতারকে রুখে দিতে চায় লাল-সবুজরা। প্রস্তুতিতে তারই রণকৌশল সাজানোয় ব্যস্ত কোচ জেমি ডেও। তবে কোচও জানেন কাজটা সহজ হবে না। কৌশলটা প্রাথমিকভাবে একটাই রুখে দিতে হবে কাতারকে। আফগানিস্তানকে উড়িয়ে দেয়া কাতারকে আবার রুখে দিয়েছে প্রতিবেশি দেশ ভারত। তবে শক্তির বিচারে যোজন যোজন এগিয়ে কাতার। ফিফা র‌্যাঙ্কিং তার বড় প্রমাণ। র‌্যাঙ্কিংয়ে কাতারের অবস্থান ৬২। যেখানে বাংলাদেশ (১৮৭) ঢের পিছিয়ে। জাপান-কোরিয়াকে হারিয়ে এশিয়ান কাপ জেতা ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের রুখে দেয়ার কাজটা যে সহজ হবে না সেটা জানেন জেমি ডে, ‘ফুটবলের কোনও বিভাগেই আমরা তাদের ধারে-কাছেও নেই। সব দিক দিয়ে কাতার আমাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে। গত জুনে কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়ার সঙ্গে তারা লড়াই করে হেরেছে, ড্র করেছে প্যারাগুয়ের সঙ্গে। এর আগে এশিয়া কাপে জাপান-কোরিয়াকে হারিয়েছে। আমরা লড়াইয়ের যথাসাধ্য চেষ্টা করবো। অনুশীলনে ছেলেদের বলা হচ্ছে, কিছুতেই হাল ছেড়ে দেওয়া যাবে না।’ প্রস্তুতির সময় আছে মাত্র দুই দিন। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আফগানদের সঙ্গে ১-০ হেরে শক্তিশালী কাতারকে রুখে দিতে তাই চলছে রণকৌশল সাজানোর পালা। জেমির কথায়, ‘কীভাবে কাতারের বিপক্ষে লড়তে হবে তা নিয়ে আলোচনা চলছে। হাতে কয়েক দিন আছে। ম্যাচের রণকৌশল নিয়ে কাজ চলছে।’ কৌশল একটাই। গোল করতে দেয়া যাবে না কাতারকে। তবে ভারতের রক্ষণে ঝড় তোলা কাতারকে সামলানো সহজ হবে না নিশ্চয়ই। তবে ভয় নয় বরং সমীহ করেই তাদের সামনে যেতে একশ’ভাগ দিতে প্রস্তুত জেমি ডে শিষ্যরা। জেমির কথায়, ‘ভয় পাওয়ার কিছু নেই। ভয় নয়, বলতে পারেন তাদের সমীহ করছি। সবাই জানে ফুটবলে বাংলাদেশ আর কাতারের মধ্যে কতটা পার্থক্য।’ পুরো দলকেই সেরাটা দিতে হবে। দলের ফুটবলারদের প্রস্তুতি নিয়ে সন্তুষ্ট জেমি, ‘শুধু ডিফেন্ডাররা নয়, পুরো দল প্রস্তুতি নিচ্ছে। আমরা ওদের প্রতিটি আক্রমণ রুখে দিতে চাই।’ কাল কাতারকে দিয়েই নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নামছে বাংলাদেশ দল। ১৫ অক্টোবর কলকাতায় ভারতের সঙ্গে ম্যাচ। তাই প্রস্তুতিটাও হওয়া চাই যুতসই। ভুটানকে দুটো প্রস্তুতি ম্যাচে হেসে-খেলে হারানো বাংলাদেশের সামনে এবার কঠিন চ্যালেঞ্জ। কাতার এশিয়া কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এবং আগামী বিশ্বকাপের আয়োজক। ভারতের ‘কীর্তি’ও কম নয়। গত মাসে কাতারকে রুখে দিয়েছে তারা, গোলশূন্য ড্র নিয়ে ফিরেছে দোহা থেকে। এমন দুই দলের মুখোমুখি হওয়ার আগে বেশ দুশ্চিন্তায় জেমি ডে। তাই বলে মাঠে নামার আগে হাল ছেড়ে দিতে রাজি নন বাংলাদেশের কোচ। বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবেন জামাল ভূঁইয়া। তিনিও বললেন কোচের কথাই। আসলেই আমরা অনেক পিছিয়ে। তবে মাঠের খেলায় নিজেদের শতভাগ উজাড় করে খেলতে চাই। বাংলাদেশ ফুটবলে যে নবদিগন্দের সুচনা সে পথে এগিয়ে যেতে চাই। দলের সবাই একাট্টা, অনুশীলনও হয়েছে দূর্দান্ত। কাতার আমাদের চাইতে অনেক এগিয়ে সত্য, তবে মাঠে আমরা অতিথিদের রুখে দেওয়ার রণকৌশল বাস্তবায়নেই নামবো।

The Post Viewed By: 75 People

সম্পর্কিত পোস্ট