চট্টগ্রাম সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:৫৯ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

ফাইনাল ম্যাচে রশিদের ‘মাথা ঠান্ডা’ টোটকা

দেশের জন্য খেলবে আফগানরা

তিন বছরেরও বেশি সময় টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে অপ্রতিরোধ্য আফগানিস্তান। ২০১৬’র ডিসেম্বর থেকে চলতি ত্রিদেশীয় সিরিজে আসার আগ পর্যন্ত টানা জয়ের মধ্যেই ছিল দলটি। অবশেষে বাংলাদেশে এসে দলটির প্রায় তিন বছরের উড়ন্ত ছন্দের পতন ঘটেছে। তিন জাতির টুর্নামেন্টে শের-ই-বাংলায় হুঙ্কার ছাড়লেও জহুর আহমেদের পেস কন্ডিশনে গিয়ে পা হরকায়। টানা দুই ম্যাচে জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশের কাছে হারতে হয়েছে। কিন্তু তাই বলে চুপসে যায়নি দুর্দান্ত আফগানরা। তাদের আত্মবিশ্বাসেও এতটুকু চিড় ধরেনি। বরং এই হারকে শক্তিতে পরিণত করে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে দলটি প্রবল বিক্রমে ঘুড়ে দাঁড়াতে চাইছে। আর এই ক্ষেত্রে দলপতি রশিদ খানকে প্রেরণা দিচ্ছে টানা তিন বছর অজেয় থাকার সমীকরণ। পাশাপাশি অনুসরণ করবেন একটি কৌশল। মাথা ঠান্ডা রেখে সতীর্থরা হাইভোল্টেজ ম্যাচটিতে নিজেদের সেরাটি খেললে আরেকবার বাংলাদেশ বধ কঠিন হবে না বলে বিশ্বাস তার। রশিদ খান জানালেন, ‘গেল তিন বছর আমরা ভালো ক্রিকেট খেলেছি, বিশেষ করে টি-টোয়েন্টিতে। যদি আমাদের ক্রিকেটাররা তাদের সেরা খেলাটা খেলে আমরা বিশ্বের যে কোনো দলকে হারাতে পারব। আমি বিশ্বাস করি আমাদের দলে যারা আছে সবাই প্রতিভাবান। আমাদের শুধু মাথা ঠান্ডা রেখে পারফর্ম করতে হবে।’ তিনি আরও জানালেন, ‘আমি মনে করি না যে ওই দুই হারে আমরা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি। আমরা কালকের (আজ) ম্যাচটির দিকেই ফোকাস রাখতে চাই। প্রথম দুই ম্যাচে যা যা করেছি, এই ম্যাচটিতেও ঠিক তাই করতে হবে। সবচেয়ে বড় কথা হলো, আমরা ফাইনালে উঠেছি। এখানে আগের হার জিত কোনো ইস্যু নয়।’ ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় হ্যামিস্ট্রিংয়ের চোট নিয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন রশিদ। কিন্তু চোট তাকে ওই ম্যাচ থেকে ছিটকে দিতে পারেনি। এ বিষয়ে রশিদ বলেন, চোট যেমনই হোক দেশের জন্য তিনি সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে তৈরি, ‘দেশের হয়ে খেলার সময় নিজেকে নিয়ে ভাবি না। দেশের জন্য সবকিছু উজাড় করে দিই। যদি একটা হাত নাও থাকে, তবুও আমাদের ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

The Post Viewed By: 38 People

সম্পর্কিত পোস্ট