চট্টগ্রাম শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:৩২ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

গ্রানাদার কাছে ২-০ গোলে হার

২৫ বছরে সবচেয়ে বাজে শুরু বার্সার

এথলেটিক বিলবাও, ওসাসুনা, বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। ২০১৯-২০ মৌসুমে খেলা প্রথম তিন ‘এওয়ে’ ম্যাচের একটিও জিততে পারেনি বার্সেলোনা (২ ড্র, ১ হার)। এবার সে তালিকায় যুক্ত হল গ্রানাদার নাম, চার বছর পর দ্বিতীয় বিভাগ থেকে উঠে আসা গ্রানাদার মাঠ লস কারমেনেসে ২-০ গোলে হেরে গেছে এর্নেস্তো ভালভার্দের দল। ৫ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সাত-এ থাকল বার্সা।

১৯৯৪-৯৫ মৌসুমের পর লা লিগায় এটাই সবচেয়ে বাজে শুরু তাদের। এথলেটিকো মাদ্রিদ সেল্টা ভিগোর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করায়, লা লিগা চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে গ্রানাদা স্বপ্নের মতো উঠে গেছে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে। ৫ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট তাদের। আর ৫ ম্যাচের তিনটিতেই হেরে নতুন করে চাপে পড়ে গেলেন বার্সা কোচ ভালভার্দে। লস কারমেনেসের ম্যাচ দিয়েই এই মৌসুমে লা লিগায় প্রথমবারের মত মাঠে নেমেছিলেন লিওনেল মেসি।

মাত্রই ইনজুরি কাটিয়ে ফেরায় ডর্টমুন্ড ম্যাচের মত গ্রানাদার বিপক্ষেও দ্বিতীয়ার্ধে বদলি হয়ে নেমেছেন বার্সার অধিনায়ক। মেসি নামার অনেক আগেই অবশ্য লিড নিয়েছিল গ্রানাদা। এই মৌসুমের পুরনো সমস্যা সেই রক্ষণের ভুলেই পিছিয়ে পড়েছে ভালভার্দের দল। জর্দি আলবার ইনজুরিতে বার্সার জার্সিতে অভিষেক হওয়া লেফটব্যাক জুনিয়র ফিরপো ভুল করে বসেন দুই মিনিটেই। ডানপ্রান্তে বল পেয়ে যান রবার্তো সলদাদো, পাস বাড়ান পুয়েরতাসকে। তার ক্রসেই হেড করে দলকে এগিয়ে নেন রামোন আজিজ। ৬৪ মিনিটে ডিবক্সে আজিজের ক্রস ক্লিয়ার করতে বল হাতে লাগে ভিদালের। প্রথমে পেনাল্টির বাঁশি না দিলেও ‘ভিএআর’-এর শরণাপন্ন হয়ে সিদ্ধান্ত বদলান মূল রেফারি। ১২ গজ থেকে স্টেগানকে পরাস্ত করতে ভুল করেননি ভাদিও। ২০০৯ সালের পর এবারই প্রথম লা লিগায় টানা তিন ম্যাচে ২ বা তার বেশি গোল হজম করল কাতালানরা। আর এওয়ে ম্যাচে জয়হীন থাকার ধারাটা বাড়ল আরেকটু, টানা সাত ম্যাচ, ২০০১ সালে সবশেষ ঘটেছিল এমনটা।

The Post Viewed By: 70 People

সম্পর্কিত পোস্ট