চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:৩৪ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক

ব্রাজিলের হারের দিনে আর্জেন্টিনার বড় জয়

শেষ বাঁশি বাজতে মাত্র ৭ মিনিট বাকি। পুরো ম্যাচেই পেরু রক্ষণভাগকে ব্যস্ত রাখা ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডরা খুঁজছেন জয়সূচক গোল। ঠিক সেই মুহূর্তেই বক্সের বাইরে ফ্রি কিক পায় পেরু। ফ্রি কিক থেকে উড়ে আসা বল ঠেকাতে গিয়েছিলেন ব্রাজিল গোলরক্ষক এডারসন। কিন্তু এর আগেই তার সামনে এসে লাফিয়ে হেড করেন লুইস আবরাম। তাঁর হেড খুঁজে নেয় জাল, উল্লাসে ভাসে পেরু ডাগআউট। আবরামের একমাত্র গোলেই প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলকে ১-০ গোলে হারিয়েছে পেরু। এই হারে টানা ১৭ ম্যাচ অপরাজিত থাকার যাত্রাটা শেষ হলো ব্রাজিলের। এবারের কোপা আমেরিকায় এই পেরুকেই দুইবার হারিয়েছিল ব্রাজিল। গ্রুপ পর্বে পেরু উড়ে গিয়েছিল ৫-০ গোলে। ফাইনালে তাদের ৩-১ গোলে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল সেলেসাওরা। লস অ্যাঞ্জেলেসে নেইমার, থিয়াগো সিলভা, দানি আলভেজ, ভিনিসিয়াস জুনিয়রকে প্রথম একাদশে রাখেননি তিতে। নতুনরা অবশ্য কোচ তিতের মন ভরাতে পারেনি। ব্রাজিল না পারলেও আর্জেন্টিনা বড় জয় তুলে নিয়েছে। ২২ বছর বয়সী লাউতারো মার্টিনেজের প্রথম হ্যাটট্রিকে প্রীতি ম্যাচে মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ৪-০ গোলে জিতেছে লা আলবিসেলেস্তেরা। মার্টিনেজ হ্যাটট্রিক করেছেন প্রথমার্ধে ৩৯ মিনিটের ভেতর। আরেকটি গোল করেছেন লিয়ান্দ্রো পারেদেস। তাতেও অবদান ছিল মার্টিনেজের। এই নিয়ে জাতীয় দলের হয়ে ১৩ ম্যাচে মার্টিনেজের গোল সংখ্যা দাঁড়াল ৯। আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি একাদশে রাখেননি পাউলো দিবালাকে। ম্যাক আলিস্টার, মার্টিনেজদের সঙ্গে ছিলেন আক্রমণে ছিলেন মার্কোস আকুনিয়া। গোলবারের নিচে বোকা জুনিয়র্সের এস্তেবান আন্দ্রাদা ছিলেন। আর সেন্টারব্যাক পজিশনে জায়গা পেয়েছিলেন মার্কোস রোহো।

নিকোলাস টালিয়াফিকোর হাতে ছিল অধিনায়কের আর্মব্যান্ড। আর্জেন্টিনার রক্ষণকে অবশ্য তেমন একটা পরীক্ষা দিতে হয়নি এই ম্যাচে। হার্ভিং লোজানো, রাউল হিমেনেজরা ছিলেন বোতলবন্দী। আর হাভিয়ের হার্নান্দেজ পুরো সময় কাটিয়েছেন বেঞ্চেই।

The Post Viewed By: 72 People

সম্পর্কিত পোস্ট