চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:২৪ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

‘অল স্পিন’ পরিকল্পনা বুমেরাং হবে না তো ?

আগে থেকেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিলো, আফগানদের বিপক্ষে স্পিন স্বর্গ বানিয়ে খেলতে নামবে বাংলাদেশ দল। যে কারণে একাদশে থাকবে স্পিনারদের আধিক্য। কিন্তু তাই বলে বোলিং আক্রমণে কোন পেসারই থাকবে না, এমনটা ঘুণাক্ষরেও কেউ আশা করেননি। স্পিন পরিকল্পনার গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিলো টসে জিতে আগে ব্যাটিং করা, যেমনটা করা গিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সে ম্যাচে। কিন্তু গতকাল টসভাগ্য আসেনি সাকিব আল হাসানের পক্ষে। ক্রিকেটের অভিজাত ফরম্যাটে প্রথমবারের মতো দলকে নেতৃত্ব দিতে নেমে, টস জেতেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান। সঙ্গে সঙ্গে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন রশিদ খান।

সেখান থেকেই যেন পিছিয়ে যাওয়ার শুরু বাংলাদেশের। কেননা ফ্রেশ উইকেটে প্রথম ঘণ্টার যে ম্যুভমেন্ট, তা কাজে লাগানোর জন্য কোনো পেসারই যে নেই টাইগার অধিনায়কের হাতে। তাই বাধ্য হয়েই নতুন তাইজুল ইসলামের সঙ্গে নিজেই শুরু করেন আক্রমণ। কিন্তু এক ওভার করার পরই নিজেকে আক্রমণ থেকে সরিয়ে নেন সাকিব, ডেকে নেন ডানহাতি অফস্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজকে। তাইজুল-সাকিবের দুই ওভারের জুটির পর শুরু হয় তাইজুল-মিরাজের স্পেল। এখানেও মিরাজকে খুব বেশি করাননি সাকিব। একপ্রান্তে তাইজুলকে টানা ২৫ ওভার পর্যন্ত বোলিং করিয়ে, অপর প্রান্তে ঘুরে ফিরে করেছেন সাকিব, মিরাজ ও নাঈম হাসান। আর দিন শেষে সফলতা পেয়েছেন কেবল তাইজুল ও নাঈম ২টি করে। অন্য উইকেট দলের পঞ্চম স্পিনার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ঝুলিতে। উইকেট যেমন দেখা গিয়েছে, তাতে পেসারদের হয়তো করার ছিলো না কিছুই। সে কারণেই কোনো ফাস্ট বোলার না নিয়ে, পুরোপুরি স্পিন দিয়েই সাজানো হয়েছে বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ। তবু আফগানরা ৫ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান করে ফেলেছে প্রথম দিনেই। অবিচ্ছিন্ন ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে এরই মধ্যে যোগ হয়েছে ৭৪ রান। অভিজ্ঞ আসগর আফগান ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ইনিংসে অপরাজিত রয়েছে ৮৮ রান করে, উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আফসার জাজাইয়ের সংগ্রহ ৩৫ রান। আজ সকালে ৪০০ ছুঁইছুঁই যে কোনো সংগ্রহের জন্য এ দুই ব্যাটসম্যানের দিকেই তাকিয়ে থাকবে আফগানিস্তান। অন্যদিকে বাংলাদেশ তাকিয়ে রয়েছে অলৌকিক কিছুর জন্য। প্রসঙ্গত, শুধু বাংলাদেশই যে চার স্পিনার নিয়ে খেলছে তা নয়! সমান ৪ জন স্পিনার রয়েছে আফগান একাদশেও। বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনার রশিদ খানসহ আছেন অফস্পিনার মোহাম্মদ নবী, বাঁহাতি চায়নাম্যান জহির খান ও তরুণ লেগস্পিনার কাইস আহমেদরা। দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের ব্যাটম্যানদের নাকানি চুবানি খাইয়েছেন জহির খান। যা তাকে আত্মবিশ্বাস জোগাবে এ টেস্টেও। আফগানিস্তানের স্কোয়াডে এমন বৈচিত্র্যময় স্পিনারদের সমাহার থাকার পরেও, স্পিন উইকেট বানিয়ে নিজেরা অল স্পিন অ্যাটাকে যাওয়ার পরিকল্পনা কতটা যৌক্তিক হলো, তা নিয়ে অনেক প্রশ্ন থেকেই যায়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 195 People

সম্পর্কিত পোস্ট