চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

৯ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ

হুমায়ুন কবির কিরণ

বিশ্বের দৃষ্টি আজ মেসি-নেইমারে

২০ নভেম্বর থেকে মাঠে গড়িয়েছিল কাতার বিশ্বকাপ। দুটি পর্ব পেরিয়ে ট্রফির অপেক্ষা আর তিনটি পর্বের। অর্থাৎ বিশ্বকাপ এই মুহূর্তে কোয়ার্টার রাউন্ডে। সেখানে বাংলাদেশ সময় আজ রাতেই মাঠে নামছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। না, একে অপরের বিরুদ্ধে নয়। রাত ৯টায় ব্রাজিল খেলবে লুকা মদ্রিচের কোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে। অন্যদিকে দিবাগত রাত ১টায় আর্জেন্টিনা শেষ চারের লক্ষ্যে মাঠে নামবে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে। দুটি ম্যাচই সরাসরি দেখাবে বিটিভি, জিটিভি ও টি স্পোর্টস।

 

আজকের দুটি ম্যাচ বিশেষ, কারণ নেইমার ও মেসি যে একইদিন মাঠে নামছেন। বাংলাদেশের ফুটবল ভক্তরাও নিশ্চিভাবে আজ রাত ৯টা থেকে ১১টা ও রাত ১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত চোখ রাখবেন টিভি পর্দায়, অনেকটা নির্ঘুম রাত কাটানোর অবস্থা। তাতে প্রিয় দল যদি হাসতে পারে, হাসি ফুটবলে মেসি-নেইমার ভক্তদের মুখেও। জাদুকর লিওনেল মেসির হাত ধরে এবার শিরোপা খরা কাটাতে মুখিয়ে আর্জেন্টিনা।

 

অন্যদিকে ব্রাজিল সওয়ার হয়েছে নেইমারের মতো অভিজ্ঞ, রিচার্লিসন-ভিনিসিউস জুনিয়রদের মতো তরুণদের কাঁধে। সে লক্ষে কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন নম্বর মাঠে প্রস্তুতি নিয়েছে আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে আল আরাবি স্পোর্টস ক্লাব মাঠে অনুশীলন করেছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। আল আরাবি স্পোর্টস ক্লাব মাঠ গণমাধ্যমকর্মী, এমনকি সমর্থকদের জন্য দরজা ছিল খোলা। পরিবার-পরিজন, বাচ্চাদের সঙ্গে পারিবারিক আবহে সময় কাটান আলিসন-আলভেজরা। নেইমার, রিচার্লিসনরা ট্রেনিং গ্রাউন্ডে ভক্তদের অটোগ্রাফের আবদার মিটিয়েছেন।

 

কোচ ‘প্রফেসর’ তিতেও খেলোয়াড়দের ছেলে-মেয়েদের সঙ্গে আনন্দে মেতেছিলেন। কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘাঁটিতে আর্জেন্টিনা কোচ স্কালোনি গণমাধ্যমের জন্য বরাবরের মতো ১৫ মিনিট বরাদ্দ রেখেছিলেন। আকাশি নীল-সাদা জার্সিধারী দলটির সমর্থকদের জন্য স্বস্তির খবর, ঊরুর চোট কাটিয়ে ট্রেনিং ফিরেছেন মাঝমাঠের নির্ভরযোগ্য সেনানি ডি মারিয়া। অর্থাৎ সামনের পথচলায় পুরো শক্তির দল পাচ্ছেন আর্জেন্টিনা কোচ।

 

বলা হচ্ছে কাতার আসরের সেরা দিন আজই! আসলেই, তবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা কোয়ার্টারের হার্ডল পেরিয়ে যেতে পারলে আক্ষরিক অর্থেই সেরা দিন হবে ১৩ ডিসেম্বর। কারণ সেদিন সেমিতে মুখোমুখি হবেন মেসি ও নেইমার। সেটা পরে, আপাতত আজ সবার নজর থাকবে শুরুতে নেইমার ও পরে মেসির দিকে। ব্রাজিল এককভাবে নেইমারের উপর নির্ভরশীল না হলেও ফুটবলের এই তারকা মাঠে থাকা মানেই বাড়তি শক্তি। যেটা প্রি- কোয়র্টারে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সাম্বা ছন্দেই দেখা গেছে।

 

২০০৬ ও ২০১৪ সালে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে ব্রাজিল ও ক্রোয়েশিয়া মুখোমুখি হয়েছিল। দুটোতেই জয় পায় ব্রাজিল। আজই প্রথমবার বিশ্বকাপের নক-আউটে ক্রোয়াটদের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ব্রাজিল। বিশ্বকাপে ক্রোয়াটদের বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকার রেকর্ড নেইমারদের বাড়তি মনোবল দিলেও রাশিয়া বিশ্বকাপের রানার আপ লুকা মদ্রিচরা আরও একবার চাইবেন ফাইনালে খেলতে। সেক্ষেত্রে আজ নেইমারকে তার সেরাটাই দিতে হবে, সাথে ব্রাজিল স্কোয়াডের সবাইকেও।

 

অন্যদিকে ৩৬ বছরের দুঃখ ঘুচিয়ে শিরোপা জয়ের পথে আরও এক বাধা অতিক্রমে আজ মেসিদের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস। চলতি আসরে দুর্দান্ত ছন্দে আছেন লিও মেসি। প্রথম পর্ব থেকেই মাঠে তার সদর্প বিচরণ আর্জেন্টাইন ভক্তদের বাড়তি শক্তি দিচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই দলে ডি মারিয়া, মার্টিনেজ, তরুণ আলভেজের মতো তারকারা থাকা সত্ত্বেও ভক্তরা মেসি ছন্দ চাইবেন আজও। বিশ্বকাপে মুখোমুখিতে ৫ ম্যাচে ২টি করে জয় দু’দলেরই, একটি ম্যাচ ড্র হয়েছিল।

 

পূর্বকোণ/আর

 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট