চট্টগ্রাম রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১ নভেম্বর, ২০২২ | ৭:২০ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

ভুটানকে ৮-০ গোলে উড়িয়ে বাংলাদেশের আসর শুরু

মেয়েদের সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ টুর্নামেন্ট আসরের উদ্বোধনী দিনে ভুটানকে ভুটানকে ৮-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে আজ (১ নভেম্বর)  এই  ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়

বাংলাদেশের মেয়েদের  অনূর্ধ্ব-১৫ দলটি অভিজ্ঞতার দিক থেকে অনেক পিছিয়ে। দলের একমাত্র আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ফুটবলার দলের সহ-অধিনায়ক জয়নব বিবি রীতা। মাত্র তিন মাস আগেই এই দল গঠন করা হয়েছে। তবে মাঠের পারফরম্যান্স দেখে তা বোঝার উপায় নেই। দলের হয়ে হ্যাটট্রিক করেছেন সুরভী আকন্দ প্রীতি। জোড়া গোল করেছেন উমহেলা মারমা। বাকি গোল তিনটি করেছেন জয়নব বিবি রীতা, থুইনুই মারমা, কানন রানী বাহাদুর।

 

আজ শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আক্রমণাত্মক ফুটবলের পসরা সাজিয়ে বসে বাংলাদেশ। একের পর আক্রমণে ভুটানের রক্ষণের কঠিন পরীক্ষাই নিয়েছে বাংলাদেশ। আক্রমণের ধারাবাহিকতায় ম্যাচের সাত মিনিটেই এগিয়ে যায় প্রীতি-রীতারা। নুসরাত জাহান মিতুর ক্রস থেকে বল পান উমহেলা মারমা। মাঝ মাঠ থেকে একাই বল টেনে নিয়ে যান ডি-বক্সে। গোলরক্ষককে একা পেয়ে বাম পায়ের প্লেসিং শটে বল জালে জড়ান উমহেলা।

দ্বিতীয় গোলের জন্য খুব একটা অপেক্ষা করতে হয়নি বাংলাদেশকে। ২২তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন থুইনুই মারমা। মাঝমাঠ থেকে কানম আক্তারের পাস পেয়ে যান শ্রীমতী তৃষ্ণা রানী। বক্সের ভেতর থুইনুইকে পাস দেন তিনি। এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের হাতের নিচে দিয়ে গ্রাউন্ডেড শটে বল জালে জড়ান থুইনুই।

 

ছয় মিনিট পরে দূরপাল্লার শটে দলকে ৩-০ গোলে এগিয়ে দেন জয়নব বিবি রীতা। প্রায় ৩৫ গজ দূর থেকে নেয়া রীতার দর্শনীয় শট ভুটানের গোলরক্ষক দীক্ষা রায়ের মাথার উপর দিয়ে জালে জড়ায়।  

৫০তম মিনিটে বদলি নামা কানন রানী বাহাদুরের গোলে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। ভুটানের গোলরক্ষক দীক্ষা রানীর ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। এগিয়ে এসে আক্রমণ প্রতিহত করতে চেষ্টা করেন করেন ভুটানের গোলরক্ষক দীক্ষা। বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে বুট খুলে যায় তার। জাল সামলানের দিকে নজর না দিয়ে বুট ঠিক করার দিকে নজর ছিল দীক্ষার। ততক্ষণে তার ক্লিয়ার করা বল পেয়ে যান কানন। এই সুযোগ কাজে লাগান প্রায় ৩০ গজ দূরে বল পাওয়া কানন। দূরপাল্লার শটে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি তিনি।

 

প্রথমার্ধে ৪-০ গোলে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশ দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ধার আরও বাড়ায়। বাংলাদেশের হয়ে পঞ্চম গোল করেন আরেক বদলি ফুটবলার সুরভী আকন্দ প্রীতি। ৬৮ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের বাড়ানো বলে বাঁ প্রান্ত ধরে জালে শট নেন সুরভী আকন্দ প্রীতি। বল ভুটানের গোলরক্ষকের হাত ছুঁয়ে ঠাই নেয় জালে। দুই মিনিটের ব্যবধানে আবারও গোল করে দলকে এগিয়ে দেন সুরভী। জয়নবের থ্রো করা বল গোলরক্ষকের হাত ফসকে গেলে সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করেননি তিনি।

ছয় মিনিট পরেই নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন উমহেলা। দল এগিয়ে যায় ৭-০ ব্যবধানে। ৭৫ মিনিটে জয়নব বিবির কর্নার থেকে বক্সের বাঁ প্রান্ত দিয়ে নিজের দ্বিতীয় গোল তুলে নেন উমেহলা।

 

ম্যাচের শেষ মুহূর্তে সফরকারীদের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দিয়ে নিজের হ্যাটট্রিক তুলে নেন সুরভী আকন্দ প্রীতি। মাঝমাঠ থেকে পূজা দাসের পাস থেকে বল পান সুরভী। একাই বল টেনে নিয়ে যান ডি-বক্সে। বাম পায়ের গ্রাউন্ডেড শটে বল জালে জড়িয়ে দলের বড় জয় নিশ্চিত করেন সুরভী।

 

পূর্বকোণ/রাজীব/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট