চট্টগ্রাম সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

৬ অক্টোবর, ২০২২ | ২:০৬ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

বৈবাহিক সম্পর্কে তিক্ততা বৃদ্ধি পাওয়ায় এই তালাক : আল আমিন

বৈবাহিক সম্পর্কে তিক্ততা বৃদ্ধি পাওয়ায় স্ত্রী ইসরাত জাহানকে তালাক দিয়েছেন ক্রিকেটার আল আমিন। স্ত্রী ইসরাত জাহানের বকেয়া দেনমোহর ও ইদ্দতকালীন ভরণপোষণ দেবেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সশরীরে উপস্থিত হয়ে আদালতে দেওয়া আল-আমিনের লিখিত জবাবে এ বিষয়গুলো উল্লেখ করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান।

তিনি বলেন, আল আমিন আদালতে উপস্থিত হয়ে হাজিরা দেন। এরপর আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে লিখিত জবাব দাখিল করেন। যেখানে উল্লেখ করা হয়, তিনি গত ২৫ আগস্ট তার স্ত্রী ইসরাত জাহানকে তালাক দিয়েছেন। তবে তার স্ত্রীর দাবি, তিনি তালাক সংক্রান্ত কোনো কাগজপত্র পাননি।

গত ৭ সেপ্টেম্বর আদালতে আল-আমিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ইসরাত জাহান। মামলায় বলা হয়, ২০১২ সালের ২৬ ডিসেম্বর বিয়ে হয় আল-আমিন ও ইসরাতের। তাদের দুটি ছেলে সন্তান রয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে আল-আমিন স্ত্রী ও সন্তানদের ভরণপোষণ দেন না এবং খোঁজ না নিয়ে এড়িয়ে চলছেন। গত ২৫ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টার দিকে আল-আমিন বাসায় এসে স্ত্রীর কাছে যৌতুকের জন্য ২০ লাখ টাকা দাবি করেন। ইসরাত জাহান টাকা দিতে অস্বীকার করলে আল-আমিন তাকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুষিসহ লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে তার সঙ্গে সংসার করবে না বলে জানান। ইসরাত জাহান ৯৯৯-এ টেলিফোন করে সাহায্য চাইলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে। এই মামলায় ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালতে আত্মসমর্পণ করে ২৭ সেপ্টেম্বর জামিন পান আল-আমিন। ৬ অক্টোবর পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেছিলেন আদালত।

পূর্বকোণ/আর/পিআর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট