চট্টগ্রাম শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

৩ অক্টোবর, ২০২২ | ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব ক্রীড়া প্রতিবেদক

খরচে সবাইকে ছাড়িয়ে কাতার

২০ নভেম্বর থেকে শুরু হতে চলেছে ফুটবল বিশ্বকাপের মহারণ। আপেক্ষা আর মাত্র ৪৮ দিনের। আয়োজক কাতার এখন ব্যস্ত শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে। মরুর দেশে প্রথম বিশ্বকাপ আয়োজনে বিশ্বকে চমকে দিতে চায় কাতার। সেই লক্ষ্যে তারা কতটা সফল হলো সেটা জানা যাবে আসর শেষে।

তার আগে খরচের নিরিখে বিশ্বকাপের যে কোন আসরকে ছাপিয়ে গেছে কাতার। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ কিংবা এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ব্যয়বহুল ২০১৪ ব্রাজিল আসরকে টপকে ১৯৯৪ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ৭ বিশ্বকাপের একত্রিত খরচকেও পেছনে ফেলে দিয়েছে আসন্ন বিশ্বকাপ। কাতার বিশ্বকাপের আয়োজন করতে খরচ হয়েছে ১৭,৬৮,১৮৯ কোটি ৬৭ লক্ষ টাকা। পাহাড় প্রমাণ অর্থ খরচের পেছনে একাধিক কারণ রয়েছে।

প্রথম কারণ, বিশ্বকাপের জন্য কাতারে ৮টি নতুন স্টেডিয়াম তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি তৈরি করতে হয়েছে দলগুলির জন্য অনুশীলনের মাঠও। এছাড়া মাঠে দর্শক ও ফুটবলারদের নানারকম সুযোগ সুবিধার জন্যও খরচ হয়েছে অনেক টাকা। দ্বিতীয়ত কাতারে সব হোটেল মিলিয়ে ঘরের সংখ্যা ছিল কম-বেশি ৩০ হাজার। যার প্রায় পুরোটাই ফিফা অনেক আগেই বুক করে ফেলে। বিশ্বকাপ দেখার জন্য কাতারে প্রচুর সংখ্যায় দর্শক আসতে চলেছে। তদের জন্য তৈরি করতে হয়েছে হোটেলও। এছাড়া দর্শকদের স্টেডিয়ামে যাতায়াতের জন্য পরিবহনেও অনেক টাকা খরচ হয়েছে। নামানো হয়েছে চার হাজার বাস।

 

প্রসঙ্গত, ফুটবল বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি খরচ হয়েছিল ২০১৪ সালে ব্রাজিল আসরে। সেবার সেলেকাওরা বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য খরচ করেছিল ১,৩২,৭০৭ কোটি ২৭ লক্ষ টাকা। তার ১৫ গুণেরও বেশি টাকা খরচ করে ফেলেছে কাতার।

 

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট