চট্টগ্রাম সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

২২ আগস্ট, ২০২২ | ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব ক্রীড়া প্রতিবেদক

এসি স্টেডিয়ামে বসে বিশ্বকাপ উন্মাদনায় মাতবেন দর্শকরা

২২তম ফুটবল বিশ্বকাপ শুরুর অনেক আগে থেকেই আলোচনায় কাতারের আবহাওয়া। যদিও ফিফা কাতারে সম্ভাব্য গরমকে সামনে রেখে প্রথমবারের মতো শীতকালে আয়োজন করতে যাচ্ছে গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ। তারপরও অন্য যে কোন দেশের শীতকাল আর কাতারের শীতকালের মধ্যে পার্থক্য বিস্তর। ফুটবল বিশ্লেষকরা যেমন চিন্তিত তেমনি কোচ-ফুটবলারও মহাচিন্তায় আসন্ন বিশ্বকাপে খেলায় নিজেদের পারফরম্যান্স নিয়ে।

যদিও আয়োজক কাতার তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা দিয়ে গরম আবহাওয়া নিয়ন্ত্রণ করে স্বাভাবিক পরিবেশে খেলা আয়োজনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। শীতকালে কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজন হলেও তখনও তাপমাত্রা ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছেই থাকবে। তাই কাতার নিজেদের ফুটবল স্টেডিয়ামগুলো কৃত্রিম উপায়ে ঠাণ্ডা করার ব্যবস্থা করেছে। যা খেলোয়াড় ও দর্শকদের স্বস্তি দেবে।

তারা নিজেদের আটটি স্টেডিয়ামে এয়ার কন্ডিশনিংয়ের ব্যবস্থা করেছে। ভেন্যুতে ঠাণ্ডা বাতাস প্রবেশ করানো হবে স্ট্যান্ড দিয়ে, পাশাপাশি বিশেষ নজেল দিয়ে স্টেডিয়ামের সবুজ চাদরও (মাঠ) শীতল রাখার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পুরো ব্যবস্থা করা হচ্ছে কুলিং টেকনোলজি দিয়ে, যা কিনা আবার সৌরশক্তি ব্যবহার করে। কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি দল পুরো কাজটি সম্পন্ন করছে। ড. সৌদ আব্দুল আজিজ ঘানি যিনি আবার ডক্টর কুল নামে পরিচিত তিনি পুরো বিষয়টির নেতৃত্ব দিয়েছেন।

তিনি জানান, এই পক্রিয়ায় শুধু পরিবেশ ঠাণ্ডা করাই নয় বরং বাতাসও পরিষ্কার করা হবে। আমরা দর্শকদের জন্য বাতাস পরিষ্কার করছি, উদাহরণ হিসেবে যাঁদের এলার্জি আছে তাঁদের যাতে স্টেডিয়ামে কোনও অসুবিধা না হয়, যাতে তাঁরা নিঃশ্বাস নেওয়ার জন্য পরিষ্কার ও বিশুদ্ধ বাতাস পান। আগে থেকে ঠাণ্ডা হওয়া বাতাস গ্রিলের মধ্যে দিয়ে ঢুকবে। পিচের দিকে থাকবে লার্জ নজল। এয়ার সারকুলেশন টেকনিক ব্যবহার করে ঢোকানো হবে, ঠাণ্ডা হওয়া বাতাস ফেরানো হবে ফের তা ঠাণ্ডা করা হবে, ফিল্টার করা হবে। এ প্রক্রিয়ায় বাইরের কোনও বাতাস স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। তাই স্টেডিয়ামের আকার অনুযায়ী বাতাস ঢোকানো হবে। ফলে খেলা চলাকালীন খেলোয়াড় ও দর্শক সকলের কাছে পুরো বিষয়টি উপভোগ্য হবে।

 

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন