চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই, ২০২২

সর্বশেষ:

২৭ মে, ২০২২ | ২:৩৯ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

১০ উইকেটে হারল বাংলাদেশ, শ্রীলংকার সিরিজ জয়

শ্রীলংকার দেয়া ১৪১ রানের লিড টপকে বাংলাদেশ ব্যাটারদের সংগ্রহ মাত্র ১৬৯। ফলে অতিথিদের সামনে ২৯ রানের ছোট টার্গেট ছুুড়ে দেওয়া হয়। কোন উইকেট না হারিয়ে অনায়াসেই সেটি পেরিয়ে যায় দিমুথ করুনারত্নের দল।

মিরপুর টেস্টের পঞ্চম দিনে ব্যাটিংয়ে শুরুতেই মুশফিকের উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। পরে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে আগের ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান লিটন দাস শতরানের জুটি বাধেন। সাকিব ৫৮ এবং লিটন ৫২ রানে ফিরে গেলে আর কোন ব্যাটার বেশিক্ষণ ক্রিজে দাঁড়াতে পারেননি। ফলে ১৬৯ রানে গুটিয়ে যায় টাইগাররা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওশাদা ফার্নান্দোর ২১ আর অধিনায়ক করুনারত্নের ৭ রানে লক্ষ্য পেরোয় লঙ্কানরা। চট্টগ্রাম টেস্ট ড্র হওয়ায় ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিল শ্রীলংকা।

 

দ্বিতীয় ইনিংসে মুমিনুলের দলের ব্যর্থতার কারণ আপাত দৃষ্টিতে লঙ্কান পেসারদের সামনে দাঁড়াতে না পারা। তাদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬ উইকেট নিয়েছেন আসিথা ফার্নান্দো। এছাড়া কাসুন রাজিথা দুটি এবং রমেশ মেন্ডিস নেন এক উইকেট।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৩৬৫ রানে গুঁটিয়ে যায় বাংলাদেশ দল। পরে লঙ্কানদের প্রথম ইনিংস থামায় ৫০৬ রানে। এতে ১৪১ রানের লিড পায় সফরকারীরা। তবে আবারো প্রথম ইনিংসের মতো হতশ্রী শুরু বাংলাদেশ দলের। খাদের কিনারা থেকে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা, তবে সেই চেষ্টা আলোর মুখে দেখেনি। বাংলাদেশের ইনিংস থামে ১৬৯ রানে। এতে ২৯ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে ১০ উইকেটের বিশাল জয় পেয়েছে শ্রীলঙ্কা।

দেড় সেশনের বেশি সময় হাতে রেখে পাওয়া এই জয়ের ফলে দুই ম্যাচের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সিরিজটি ১-০ ব্যবধানে জিতে নিল লঙ্কানরা। হোম অব অব ক্রিকেট খ্যাত মিরপুরে ২৩ ম্যাচে এটি বাংলাদেশ দলের ১৪তম হার। সব মিলিয়ে ঘরের মাঠে এটি ৬৯ টেস্টে ৪৫তম পরাজয়। দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পরিসংখ্যান একেবারেই সুখকর নয়। ১০ ম্যাচে কোনো জয় নেই, এনিয়ে হার ৭ ম্যাচে।

 

পূর্বকোণ/এস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট