চট্টগ্রাম রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

২১ মে, ২০১৯ | ১:১০ পূর্বাহ্ণ

বিশ^কাপের পাকিস্তান দলে আমির, আসিফ, ওয়াহাব

পাকিস্তানের পেসার মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ এবং ব্যাটসম্যান আসিফ আলী গত মাসে ঘোষিত বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা না পেলেও বিশ্বকাপের আগমুহূর্তে দলে অন্তর্ভুক্ত হলেন। এই তিন ক্রিকেটারকে বিশ্বকাপের দলে রেখে ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন বোর্ডের প্রধান নির্বাচক ইনজামাম-উল-হক। এর আগে ১৫ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছিল দলগুলো। কিন্তু দলে সংযোজন-বিয়োজনের শেষ সুযোগ আছে ২৩ মে পর্যন্ত। সেই সুযোগটাই নিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।
আমির, ওয়াহাব, আসিফকে রাখতে সম্মতি দিয়েছিলেন পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থার, অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচক ও ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য ইনজামাম-উল-হক জানিয়েছিলেন, ইংল্যান্ড সিরিজে যদি মোহাম্মদ আমির ভালো খেলে তাহলে দলে তার জায়গা হতে পারে। আমির, আসিফ, ওয়াহাবদের নিয়ে গড়া চূড়ান্ত তালিকা আইসিসির কাছে জমা দেবে পিসিবি। এমন আনন্দের খবরের মাঝেও আসিফ আলীর জন্য বার্তাটা সুখকর হচ্ছে না। ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে তার ২ বছর বয়সী মেয়ে গতপরশু মারা গেছে। সে সময় তিনি পাকিস্তানের হয়ে সিরিজের শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লীডসে খেলছিলেন। আমির, ওয়াহাব ও আসিফের জন্য পৌষ মাস হলেও কপাল পুড়েছে অলরাউন্ডার ফাহিম আশরাফ, ওপেনার আবিদ আলী আর পেসার জুনাইদ খানের। তারা তিনজনই ছিলেন বিশ্বকাপের স্কোয়াডে। তবে, তিনজনের পারফরম্যান্সে টিম ম্যানেজমেন্ট পুরোপুরি সন্তুষ্ট না হওয়ায় বিশ্বকাপ দলে ডেকেও আবার বাদ দেওয়ার কথা ভাবা হয়। চলমান ইংল্যান্ড সিরিজে আসিফ ছিলেন দুর্দান্ত ফর্মে।এদিকে, মোহাম্মদ আমির গুটি বসন্তে আক্রান্ত। লন্ডনেই তার চিকিৎসা চলছে। ইংলিশদের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে জায়গা পেলেও বৃষ্টির কারণে আমিরের বোলিং পারফর্ম পরখ করা হয়নি। এরপর অসুস্থতার কারণে আর কোনো ম্যাচ খেলা হয়নি তার। সেরে ওঠার পথে তিনি। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছিলেন আমির। ওই টুর্নামেন্টের পর ১৪টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে আমির মাত্র ৫টি উইকেট পেয়েছেন। কিন্তু, ইংলিশ কন্ডিশনে আমিরের অভিজ্ঞতা তাকে বিশ্বকাপের স্কোয়াডে আনতে পারে। ইংলিশ কন্ডিশনে সুইং বোলাররা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে, এমন চিন্তায় দলে রাখা হলো ওয়াহাব রিয়াজকে। প্রধান নির্বাচক ইনজামাম জানিয়েছেন, ‘রিভার্স সুইংয়ের দক্ষতার কারণে ওয়াহাবকে দলে নেওয়া হয়েছে। এই মৌসুমে কেউ প্রত্যাশা করেনি যুক্তরাজ্যে এত শুরুতে ফ্ল্যাট পিচ হবে। সে ভাবনা থেকে আমরা কৌশল পাল্টেছি।’

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট