চট্টগ্রাম রবিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০

১৪ জানুয়ারী, ২০২০ | ১১:১৬ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

সংসদে ধর্ষককে ‘ক্রসফায়ারের’ দাবি

জাতীয় সংসদে ধর্ষককে সরাসরি ক্রসফায়ারে হত্যার দাবি উঠেছে। সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা আজ মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) এমন দাবি জানান।

সরকারি দলের সিনিয়র সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, কেউ ধর্ষক হিসেবে চিহ্নিত হলে তার এই পৃথিবীতে থাকার কোনো অধিকার নেই।

নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী বলেন, আমি টুপি, দাড়ি মাথায় নিয়ে আল্লাহকে হাজির-নাজির জেনে বলছি, এদের ক্রসফায়ার করলে বেহেস্তে যাওয়া যাবে, কোনো অসুবিধা নাই।

জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, এই মুহূর্তে যদি এই সমাজকে ধর্ষণমুক্ত করতে চান, তাহলে এনকাউন্টার মাস্ট। তাকে গুলি করে মারতে হবে।

একই দলের সংসদ সদস্য, সাবেক প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, যে হারে ধর্ষণ বেড়েছে সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েও নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে না। অনুরোধ থাকবে ধর্ষণের দায়ে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক।

পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে সারাদেশে ধর্ষণ ও নারী শিশু নির্যাতনের প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেন, সারাদেশের মানুষ ও নারী সমাজ উদ্বিগ্ন। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর ১৭ হাজার ৯০০টি নারী নির্যাতনের মামলা হয়। এর মধ্যে ৫ হাজার ৪০০ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শিশু ধর্ষণের শিকার হয় ১৮৫ জন। ২০১৮ সালে ধর্ষণের সংখ্যা ছিল ৭২৭। গেল বছর ধর্ষণের পর ১২ শিশু মারা যায়। নারী মৃত্যু হয় ২৬ জনের। এ বছর ধর্ষণের শিকার হয়ে মারা যায় ১৪টি শিশু। তার মানে গত বছরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২০১৯ সালে ধর্ষণ হয়েছে।

তিনি বলেন, এ বিষয়টা যদি আমরা গুরুত্ব না দেই জাতির সামনে প্রশ্নের জবাব দিতে পারবো না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হলো, যদিও সরকার জরুরি ব্যবস্থা নিয়ে অপরাধীকে গ্রেপ্তার করেছে। এরপরও প্রশ্ন আছে জনমনে। নানা কারণে মানুষ বিশ্বাস করছে না। এরপরই সাভারে ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। ধামরাইয়ে একই ঘটনা ঘটে। তিনি ধর্ষণের বিষয়টি নিয়ে এক দিন সময় নির্ধারণ করে আলোচনার সুযোগ দেয়ার দাবি জানান সংসদে।

পূর্বকোণ/আরপি

The Post Viewed By: 83 People

সম্পর্কিত পোস্ট