চট্টগ্রাম রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০

৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

ইমাম হোসাইন রাজু

আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস আজ

অভিযোগে জর্জরিত সেবা সংস্থা

হ ৬০ শতাংশই সরকারি সংস্থার বিরুদ্ধে হ দু’বছরেই ৩৩ লাখ অভিযোগ দুদকের হটলাইনে হ সবচেয়ে বেশি অভিযোগ ভূমি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিআরটিএ’র বিরুদ্ধে

বছর দুয়েক আগে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে দুর্নীতির বিষয়ে অভিযোগ শুনতে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক চালু করে হটলাইন নম্বর-১০৬। চালুর দুই বছরেই দুদকের এই হটলাইন নম্বরে ৩৩ লাখের বেশি অভিযোগ জমা পড়ে। দুদকের হটলাইন নম্বরে আসা অভিযোগের প্রায় ৬০ শতাংশই হচ্ছে সরকারি সেবা সংস্থাগুলোর বিরুদ্ধে।

দুদক জানায়- অভিযোগের সবচেয়ে বেশি ভূমি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিআরটিএ’র বিরুদ্ধে। এর বাইরে গ্যাস, ওয়াসা, বিমান, সিভিল এভিয়েশন, বিদ্যুাৎ, কাস্টম্স, রেলওয়ে, কারাগার, পরিবহন, পাসপোর্ট, সিটি কর্পোরেশন ও পরিবহন খাতের বিরুদ্ধেও রয়েছে অভিযোগ। এ খাতগুলোতেই বেশি হয়রানি, অনিয়ম ও দুর্নীতির শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে প্রায় একহাজারেরও বেশি অভিযান চালিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে দুদক। সরকারি সংস্থা ছাড়াও বেসরকারি ব্যক্তির অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিষয়ে অভিযোগ জমা পড়ে ১৯ শতাংশ। আর দুদকের তফসিলের বাইরে ২১ শতাংশ অভিযোগ জমা পড়ে।

এদিকে যে সকল সংস্থার বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষের অভিযোগ বেশি, সে দিকে আরও বেশি তৎপরতা বাড়ানোর পরামর্শ দুর্নীতিবিরোধী বেসরকারি সংস্থা টিআইবি চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি এডভোকেট আখতারুল কবির চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘যে বিভাগের বিরুদ্ধে দুদকের কাছে বেশি অভিযোগ থাকবে, তাতেই বেশি বেশি অভিযান চালাতে হবে। তাহলে ওই সেবা সংস্থার অন্য কোন কর্মকর্তা-কর্মচারী দুর্নীতি করতে অন্তত চিন্তা করবে’। দুদকের হটলাইন নম্বরে এত অভিযোগের বিষয়ে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এতেই প্রমাণিত হয়, দেশে দুর্নীতি আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে। এমন চলতে থাকলে দিনদিন আরও বৃদ্ধি পেতে থাকবে। তাই সবাইকে এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে’।
দুর্নীতির এমন চিত্রের মধ্যেই দেশে আজ ৯ ডিসেম্বর পালিত হচ্ছে দুর্নীতিবিরোধী দিবস। দিবসটি উপলক্ষে সরকারি-বেসরকারিভাবে নেওয়া হয়েছে নানান কর্মসূচিও।

২০০৩ সালে সারাবিশ্বকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে জাতিসংঘ ৯ ডিসেম্বরকে আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। এরপর ২০০৭ সাল থেকে দিবসটি পালন

শুরু করা হয়। তবে বাংলাদেশে সরকারিভাবে ২০১৭ সাল থেকেই দিবসিট পালিত হচ্ছে। আজও সারাদেশে দিবসটি পালন করা হচ্ছে। গতবারের ন্যায় এবারও ‘‘আসুন, জাতীয় উন্নয়নের স্বার্থে দুর্নীতির বিরুদ্ধে একতাবদ্ধ হই’’ এ বিষয়কে সামনে নিয়ে পালন করা হচ্ছে দিবসটি।
দিবসটি উপলক্ষে সারাদেশেই দুর্নীতিবিরোধী গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কার্যক্রম, মানববন্ধন, সততা সংঘের সমাবেশ, তথ্যচিত্র প্রদর্শনসহ অন্যান্য কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। চট্টগ্রামেও এ দিবস উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছে নানা কর্মসূচি। এরমধ্যে সকাল নয়টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজন করা হয়েছে আলোচনা সভা ও শিক্ষার্থী সমাবেশ।

The Post Viewed By: 83 People

সম্পর্কিত পোস্ট